শিরোনাম
 কেয়া গ্রুপের এমডি খালেক পাঠান গ্রেফতার  অবশেষে টেস্ট দলে মুমিনুল  পোশাক শ্রমিকদের ছুটি শুরু ২৮ আগস্ট  বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কোনো মানুষ না খেয়ে মরবে না: প্রধানমন্ত্রী
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৭, ১৭:৫৬:০৬ | আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৭, ১৮:১৭:৩১

'তুফানকাণ্ডে' দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে: রিয়াজুল হক

বগুড়া ব্যুরো
বগুড়ায় শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের কাণ্ডে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন করেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক।

তিনি বলেন, আজকের বাংলাদেশ বিশ্বের রোল মডেল। আমরা উন্নয়নের মহাসড়কে পা দিয়েছি। খুব শিগগিরই মধ্যমআয়ের দেশে রূপান্তরিত হতে যাচ্ছি। বিশ্বের দরবারে আমাদের মাথা উঁচু হয়ে গেছে। কিন্তু একই সঙ্গে যখন তুফান কাণ্ড ঘটে, তখন বিশ্বের মানুষের মধ্যে আবার শঙ্কা হয়। তারা এটাকে একটা অজুহাত হিসেবে নিয়ে বাংলাদেশকে অবমূল্যায়ন করে।’

রোববার বগুড়ায় ‘নারীর প্রতি সহিংসতা সম্প্রতিক ঘটনাবলি ও উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

বগুড়ায় কিশোরী ধর্ষণ এবং পরে কিশোরী ও তার মাকে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার হোতা শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন রিয়াজুল হক।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন অনেক দূর এগিয়ে গেছে এবং আরো এগিয়ে যাবে বলে আমরা আশা করি। যে গোষ্ঠীর কারণে, যাদের কারণে এই জাতীয় ঘটনা ঘটছে তাদের শাস্তি নিশ্চিত করে দেশের স্বার্থকে আমাদের রক্ষা করতে হবে।’ 

বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, আইনজীবী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সঞ্চালনা করেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক নূরে আলম সিদ্দিকী। সভায় অংশ নেওয়া বগুড়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী নানা অপকর্মের হোতা কিশোরী ধর্ষক তুফান সরকারকে আগে কেন পুলিশ গ্রেফতার করেনি তা নিয়ে জরালো প্রশ্ন উত্থাপন করেন।

ওই শিক্ষার্থী ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলে ‘আমরা কোনো ঘটনা ঘটলেই কেবল পুলিশ ও মিডিয়ার লোকজনদের লাইট, ক্যামেরা নিয়ে সরব হতে দেখি। তুফানের বিরুদ্ধে মামলা থাকলেও পুলিশ কেন আগে তাকে গ্রেফতার করেনি, কেন সাংবাদিকরা আগে তাকে নিয়ে লেখেনি? যদি তাকে আগে গ্রেফতার করা হতো, তাহলে সে এসব অপকর্ম করার সাহস পেতো না।’

আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে বিশ্বে বাংলাদেশের অনেক অগ্রগতির কথা উল্লেখ করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, বিগত ৬/৭ বছরে অনেকগুলো নারীবান্ধব, শিশুবান্ধব আইন আমাদের দেশে হয়েছে। আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটা ভালো অগ্রগতি করেছে, বিশ্ব দরবার এটাকে গ্রহণও করেছে। কিন্তু একথাও ঠিক যতো ভালো আইনই হোক না কেন, আইনের সঠিক প্রয়োগ যদি আমরা নিশ্চিত করতে না পারি- তাহলে যত সদিচ্ছাই থাকুক না মানুষকে শান্তিতে ও নিরাপদে রাখা রাষ্ট্রের পক্ষে সম্ভব হবে না।

বাংলাদেশে ধর্ষণ এবং পালাক্রমে ধর্ষণের ঘটনা দিন-দিন বেড়েই চলেছে উল্লেখ করে কাজী রিয়াজ বলেন, মহিলা পরিষদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী- ২০১২ সালে সারাদেশে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৫০৮টি। পক্ষান্তরে ২০১৭ সালের ৭ মাসে (জানুয়ারি-জুলাই) ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৫২৬টি।একইভাবে ২০১২ সালে পালাক্রমে ধর্ষণের (গ্যাং রেপ) ঘটনা ঘটে ১৫৭টি। আর চলতি বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে ১১৯টি। এসব তথ্য আমাদের উদ্বিগ্ন করে।

আমাদের দেশে একটা সামাজিক অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে বলেই দেশে ধষর্ণ ও অপরাধ প্রবণতা এখনও চলছে, এটা মোটেই কাম্য নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

সাধারণ মামলার ৮৮ ভাগ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ৯৫ ভাগ আসামি খালাস পেয়ে যাচ্ছেন উল্লেখ করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, বিচার প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত পুলিশ, আইনজীবী ও চিকিৎসকসহ দায়িত্বরা তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে পারছেন না বলেই সাধারণ মামলার ৮৮ভাগ আসামি খালাস পেয়ে যাচ্ছে একইভাবে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ৯৫ ভাগ আসামীর কোন সাজা হচ্ছে না। 

তিনি বলেন, অভিযোগ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে মানুষের মধ্যে বিচারহীনতার যে সংস্কৃতি ঢুকে গিয়েছিল অর্থাৎ অপরাধ করলে তার শাস্তি হয় না, এই যে একটা বিশ্বাস মানুষের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি করেছিল- সেই হতাশাটাকে আরো দৃঢ়তর করে। তাই আমরা মনে করি দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে হবে। সেই সাথে-সাথে আমাদের সমাজের যারা নেতৃবৃন্দ আছেন, মিডিয়া আছে প্রত্যেককেই বিষয়গুলো তুলে ধরতে হবে, জোড়ালোভাবে তুলে ধরতে হবে। সবাইকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে শুধু আইনকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করতে হবে।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved