শিরোনাম
 নায়করাজ রাজ্জাক আর নেই  বন্যার্তদের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সমবেদনা  রীড ফার্মা: স্বাস্থ্য সচিবকে হাইকোর্টে তলব  ৩৮ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণের ট্রেন চালু
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৭, ০১:১৯:১৮

ডাচ কুইন শিপার্স

স্পোর্টস ডেস্ক
একেবারে সোনার মুকুট মাথায় দিয়ে প্রত্যাবর্তন যাকে বলে। লন্ডনের বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপের ২০০ মিটার স্প্রিন্টে স্বর্ণ পদক পুনরুদ্ধার করেছেন ডেফনে শিপার্স। ২০১৫ সালের বেইজিং বিশ্ব মিটের পর আবার ২০০ মিটারে গোল্ড মেডেল জিতলেন তিনি।

অলিম্পিকে অল্পের জন্য ২০০ মিটারের স্বর্ণ পদক হাতছাড়া হয়েছিল এই ডাচকন্যার। ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে ২০০ মিটার স্প্রিন্টে রৌপ্য পদক জিতেছিলেন তিনি। এবারও সংশয় ছিল; কিন্তু লন্ডন স্টেডিয়ামে সব সংশয় মুছে দিয়ে ২০০ মিটারে সোনার মুকুট মাথায় পরেছেন 'ডাচ কুইন' শিপার্স। ২২.০৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে ২০০ মিটারের নতুন রানী হওয়ার পর তিনি বলেন, 'আমি এটার জন্য লড়াই করেছি। আমি এই বছর কঠিন পরিশ্রম করেছি। এখন আমি খুশি। টানা দুইবার জেতাটা বিশেষ কিছু।' সেকেন্ডের তিনশ ভাগের ব্যবধানে দ্বিতীয় হয়ে ২০০ মিটারে রৌপ্য জিতেছেন আইভরিয়ান মারি-জোসি টা লও। ১০০ মিটারেও আমেরিকান টোরি বোওইর কাছে হেরে রৌপ্য জিতেছিলেন টা লও। ২০০ মিটারে অবশ্য ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন টোরি অংশগ্রহণ করেননি। বাহামার শাওনে মিলার-ইউবো ২২.১৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে তৃতীয় হন। ২০০ মিটারে ব্রোঞ্জ জেতার আগে ৪০০ মিটারে চতুর্থ হয়েছিলেন মিলার-ইউবো।

২০১৫ সালের বেইজিং বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে ২০০ মিটারের রানী এবার পদক ধরে রাখতে পারবেন কি-না তা নিয়ে সংশয় ছিল। শুক্রবার রাতে লন্ডন অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণ জেতার পর ডাচ জন্য শিপার্স বলেন, 'এই জয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি গত বছর কঠোর পরিশ্রম করেছি এবং গত বছর আমার জন্য মোটেই সহজ ছিল না। আমি সবকিছু বদলে ফেলেছিলাম। নতুন কোচও নিয়েছিলাম। এখন আমি খুব খুশি।' বিশ্ব মিটে স্বর্ণ পদক জয়ের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে শিপার্সের মন্তব্য, 'স্বর্ণ পদক জয়টা অসাধারণ ব্যাপার। আমি খুবই কৃতজ্ঞ। আমার রেস আর খেলাকে আমি খুব উপভোগ করি। শুরুর দিকে কিছুটা নার্ভাস ছিলাম। শেষ পর্যন্ত আমি সেরা হয়েছি। শেষ হওয়ার পর মনে হচ্ছে অসাধারণ অনুভূতি।'

লন্ডন অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে মেয়েদের ৩০০০ মিটারের ট্রিপল চেজ ছিল উত্তেজনায় ভরা। অলিম্পিকের ব্রোঞ্জজয়ী এমা কোবার্ন তিন হাজার মিটার ট্রিপল চেজে গোল্ড মেডেল জিতেছেন। ৯ মিনিট ০২.৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়ে প্রথম আমেরিকান হিসেবে স্বর্ণ পদক জেতেন এমা কোবার্ন। লন্ডন স্টেডিয়ামে ট্রিপল চেজে স্বর্ণ জেতার পর তিনি বলেন, 'আমার খুব সৌভাগ্য যে, আমি এমন একটা রেসে অংশ নিয়েছি। ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কথা আমার মনে আছে। একটু তাড়াহুড়া করেছিলাম। এবার নিজের ওপর আস্থা ছিল। ফলও পেয়েছি। দ্রুত শেষ করতে পেরে আমি খুব খুশি। আমি প্রাণপণে স্বর্ণটা জিততে চাইছিলাম।' আমেরিকান ব্রিটনে রেসে লং জাম্পে স্বর্ণ জিতেছেন। এটা বিশ্ব মিটে তার চতুর্থ স্বর্ণ। ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৩ সালেও স্বর্ণ জিতেছিলেন ব্রিটনে রেস। পুরুষদের হ্যামার থ্রোতে টানা তৃতীয় স্বর্ণ জিতেছেন পোল্যান্ডের পাওয়েল ফেজডেক। লং জাম্পে ৭.০২ মিটার অতিক্রম করে স্বর্ণ জেতার পর রেসে বলেছেন, 'কয়েক সপ্তাহ আমার অন্যরকম আবেগের মধ্যে কেটেছে। দুই সপ্তাহ আগে আমার পিতামহ মারা যাওয়ার পর এই জয়টা পেলাম। এটা তার জন্যই জিতলাম।'
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved