শিরোনাম
 নায়করাজ রাজ্জাক আর নেই  বন্যার্তদের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সমবেদনা  রীড ফার্মা: স্বাস্থ্য সচিবকে হাইকোর্টে তলব  ৩৮ ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণের ট্রেন চালু
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৭
গুরুবিদ্যা

খুঁজে নিন মুখের ঠিকানা

নাসির আলী মামুন
আজকের তরুণদের মতো আমিও তারুণ্যে ভাবতাম, আমাকে কিছু একটা করতে হবে। এই একটা কিছু জিনিসটা কী- তা পুরোপুরি স্থির করতে পারিনি তখন। তবে ছবি তোলার স্বপ্নটা আমাকে ঘিরে রেখেছিল_ যে স্বপ্ন ছেলেবেলা থেকেই পুষে আসছি মনে।

আমার বয়স যখন ১০-১১ বছর, তখনকার কথা। বাড়িতে বাবা পত্রিকা রাখতেন। আমার হাতে পড়লেই হলো। শুরু করতাম কাটাকুটি। পত্রিকায় ছাপা হওয়া বিখ্যাতদের ছবি কেটে জমিয়ে রাখতাম। বাবা পড়তে এসে লেখার সঙ্গে ছবি না দেখে বকা দিতেন।

দু-একবার তো মারও খেতে হয়েছিল বাবার হাতে। সুযোগ পেলেই এই বিখ্যাত মানুষদের কাটিং ছবি দেখতাম আর তাদের ছবি তোলার স্বপ্ন দেখতাম।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ভাবলাম, এবার একটা সুযোগ নেওয়া যাক। আমাদের দেশের বিখ্যাতদের নিয়েই কাজটা শুরু করি। নেমে পড়লাম কাজে। ১৯৭২ সালে আমার বয়স ছিল ১৯। এই ১৯ বছর বয়স আর মনোবল-নামের শব্দ দুটিকে পুঁজি বানিয়ে সে বছর জানুয়ারিতে নেমে পড়লাম বিখ্যাতদের খোঁজে। শুরু থেকেই চেয়েছি নিজের মতো কাজ করতে।

সাদা-কালোর যুগ ছিল তখন। সে সময় আমাদের দেশে যারা ছবি তুলতেন, তারা সবাই মূলত প্রকৃতির ছবি তুলতেন। কিন্তু আমিই প্রথম পোর্ট্রেটের ওপর কাজ শুরু করি। কোনো কোর্স করতে পারিনি টাকার অভাবে। গলায় ছিল না নিজের ক্যামেরা। তবে স্বপ্ন হাত বাড়িয়ে ডাকত আমাকে।

এখনও ডাকে। নিজের কথাগুলো শোনালাম আপনাদের সুবিধার জন্য। অনেকে মনে করে এখানে এসে সহজেই খুব ভালো করা যায়, তা কিন্তু না! আপনারা যারা ফটোগ্রাফিতে আসতে চান তাদের বলি, এখন তো ফটোগ্রাফি অনেক সোজা।

ডিজিটাল ফটোগ্রাফিতে ক্যামেরাই সব। এ ক্যামেরা নিজেই আপনাকে শিখিয়ে দেবে অনেক কিছু। তাছাড়া হাতের কাছে পাচ্ছেন ফটোগ্রাফির বইপত্র। কোর্স করেও কাজে নেমে যেতে পারছেন। তবে পোট্র্রেট ফটোগ্রাফি যারা করতে চান, তারা শুরুতেই যে বিষয়টাতে মনোযোগ দেবেন, তা হচ্ছে_ যার ছবি তুলবেন, তার জীবনযাত্রা, চরিত্র ও মন। ভালো করে এসব জেনে নিন। মানে, তাকে পড়ে নিতে হবে আগে। তার পেছনে সময় দেওয়ার মানসিকতাটাও রাখতে হবে।

তারপর চেহারায় চোখ রাখুন। আমাদের সবার ঠিকানা যেমন আলাদা, তেমনি সব মানুষের চেহারারই আলাদা ঠিকানা বা চিহ্ন থাকে। এ ঠিকানা বা চিহ্ন খুঁজে বের করুন। আলোর জ্ঞানটাও রাখা চাই সবার। আপনি কোন আলোতে ছবি তুলবেন, ছবিটা কি ঘরের আলোয় ভালো আসবে নাকি বাইরের আলোয়- তা আগে থেকেই ভেবে রাখতে হবে আপনাকে।

আর ছবিতে আপনার একটা নিজস্বতা তৈরি করে নিতে পারলে আপনি হারিয়ে যাবেন না কখনও মানুষের মনের ফ্রেম থেকে।

কিংবদন্তি ফটোগ্রাফার
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved