শিরোনাম
 সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে বনদস্যুদের গোলাগুলি  একের পর এক সিইও পদত্যাগ করায় ট্রাম্পের ব্যবসায়ী পরিষদ বিলুপ্ত
প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০১৭, ১৭:৪২:১৩

বর্ষণ-পাহাড়ি ঢলে নালিতাবাড়ীর অর্ধশতাধিক গ্রাম প্লাবিত

শেরপুর প্রতিনিধি
টানা দুই দিনের ভারি বর্ষণ ও উজানের ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার পাহাড়ি নদী ভোগাইয়ের অন্তত ১৩টি স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছে। 
 
নদী উপচে প্লাবিত হওয়ায় পৌরসভাসহ উপজেলার অন্তত অর্ধশত গ্রাম বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। শনিবার ভোর থেকে চেল্লাখালী নদীর পানি আশপাশের গ্রামে প্রবেশ করছে। এতে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ি ডুবে গেছে। ভেসে গেছে পুকুরের মাছ।
 
এছাড়াও ভোগাই নদীর তীরবর্তী নয়াবিল ইউনিয়নের হাতিপাগার  রামচন্দ্রকুড়া ইউনিয়নের মন্ডলিয়াপাড়া ও ভজপাড়া,  নালিতাবাড়ী ইউনিয়নের নিচপাড়া ও খালভাঙ্গা, বাঘবেড় ইউনিয়নের শিমুলতলা, পৌর এলাকার নিচপাড়া,  খালভাঙ্গা ও  উত্তর গড়কান্দাসহ ১৩টি স্থানে তীর রক্ষা বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙনের আশংকা রয়েছে আরও বেশকিছু এলাকায়। 
 
বর্ষণ-পাহাড়ি ঢলে নালিতাবাড়ীর অর্ধশতাধিক গ্রাম প্লাবিত
পাহাড়ী ঢলে নালিতাবাড়ী উপজেলার অন্তত ৮টি ইউনিয়ন বন্যার কবলে পড়েছে। এসব এলাকার ফসলি জমি, বাড়ি-ঘর তলিয়ে গেছে। পুকুর গড়িয়ে ভেসে গেছে কোটি কোটি টাকার মাছ। পানির তোরে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে অসংখ্যা কাঁচা ও পাঁকা রাস্তা। বন্যা কবলিত হয়ে পড়ায় বেশকিছু বিদ্যালয়ে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। কিছু এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছে কয়েক হাজার মানুষ। অপরদিকে চেল্লাখালী নদীর বাতকুচি-পলাশীকুড়ায় স্টিলের ব্রিজটি পাহাড়ি ঢলের স্রোতের তোড়ে ভেঙে গেছে। এতে চার গ্রামের অন্তত দুই হাজার মানুষ নদী পাড়াপাড়ে দুর্ভোগে পড়েছে বলে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজাদ মিয়া জানান।
 
বন্যা কবলিতরা জানান, শুক্রবার মধ্যরাতে ভোগাই নদীর বাঁধের বিভিন্ন অংশ ভেঙে আকস্মিক ঢল নামে। একই সময়ে দু’কুল উপচে ঢল নামে চেল্লাখালীর আশপাশ এলাকায়ও। এসময় তারা বাড়ি-ঘর ছেড়ে আশপাশের উচু এলাকায় আশ্রয় নেন।
 
বন্যা কবলিতরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, বিগত কয়েক বছর ধরে ভোগাই নদীর বিভিন্ন এলাকায় বাঁধ ভাঙা অব্যাহত ছিল। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে বারবার জানানোর পরও এসব বাঁধ রক্ষায় সংশ্লিষ্টরা এগিয়ে আসেনি।
 
বন্যা কবলিত বেশ কিছু এলাকা পরিদর্শন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তরফদার সোহেল রহমান জানান, বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে নিরূপণ করা হয়নি।
আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved