শিরোনাম
 সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে বনদস্যুদের গোলাগুলি  একের পর এক সিইও পদত্যাগ করায় ট্রাম্পের ব্যবসায়ী পরিষদ বিলুপ্ত
প্রকাশ : ০৬ আগস্ট ২০১৭, ২১:৩৫:৪৫ | আপডেট : ০৬ আগস্ট ২০১৭, ২১:৩৬:০৪

শেরপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণেরর মামলায় এক ব্যক্তির ৩০ বছরের জেল

শেরপুর প্রতিনিধি
শেরপুরে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণ করার মামলায় চার সন্তানের জনক আব্দুল মজিদ ওরফে লুদু মিয়া (৫৪) নামে এক ব্যক্তির ৩০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে শেরপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মুসলেহউদ্দিন ওই রায় ঘোষণা করেন। এসময় সদর উপজেলার চক কুমরি গ্রামের কালু শেকের ছেলে লুদু উপস্থিত ছিলেন।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার পূর্বকুমরি গ্রামের বাসিন্দা ও বাজিতখিলা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে মাদ্রাসা যাতায়াতের পথে প্রতিবেশী বখাটে লুদু উত্যক্ত করত। পরে কু-প্রস্তাব দিলে ঘটনাটি ওই মেয়ে তার বাবা-মাকে জানায়। বাবা-মা  গ্রামের মাতব্বরদের অভিযোগ করলে লুদু আরও বেপরোয়া হয়ে উঠে।

২০০৮ সালের ২৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে মাদ্রাসা থেকে বাড়ী ফেরার পথে অস্ত্র দেখিয়ে মেয়েটিকে লুদু অপহরণ করে। পরে একটি রিকশাযোগে তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। বাড়ীতে না ফেরায় মেয়েটির বাবা-মা মাদ্রাসায় গিয়ে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন, তাদের মেয়েকে অপহরণ করেছে লুদু। পরে মেয়েকে না পেয়ে তারা ঘটনাটি পুলিশকে জানান। কিন্তু থানা পুলিশ মামলা গ্রহণ করতে অস্বীকার করলে ওই বছর  ২০ মার্চ মেয়ের মা বাদী হয়ে আদালতে লুদু ও তার ভাই হাবিবর রহমানকে আসামী করে একটি মামলা করেন।

সাক্ষ্য-প্রমাণে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রোববার বিচারক লুদুকে ৩০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের  আদেশ দেন।

রায়ের সত্যতা স্বীকার করে শেরপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুুলু বলেন, ন্যায় বিচার পাওয়ায় এ  রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট হয়েছে।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved