শিরোনাম
 সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে বনদস্যুদের গোলাগুলি  একের পর এক সিইও পদত্যাগ করায় ট্রাম্পের ব্যবসায়ী পরিষদ বিলুপ্ত
প্রকাশ : ২৮ জুলাই ২০১৭, ২২:৫৬:২৯

শিশু শ্যালিকাকে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যা

বরিশাল ব্যুরো
শিশু শ্যালিকাকে হত্যা ও স্ত্রীকে কুপিয়ে জখমের পর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে মো. সজীব নামের এক যুবক। বৃহস্পতিবার রাতে নগরের কাউনিয়ায়র পুরানপাড়া স্কুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুর নাম সাদিয়া আক্তার (৬)। গুরুতর আহত স্ত্রী সুমাইয়া বেগমকে শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানায়, ভ্যানচালক সজীব হোসেন স্ত্রীকে নিয়ে কাউনিয়ার পুরানপাড়া স্কুল এলাকায় ভাড়া থাকত। স্ত্রী সুমাইয়া কাউনিয়ার বিসিক শিল্প এলাকায় একটি টেক্সটাইল মিলে কাজ করত। সজীবের বাড়ি জেলার উজিরপুর উপজেলার উত্তর ধামুরা এলাকায়। শ্বশুরবাড়িও একই গ্রামে। বৃহস্পতিবার রাতের খাবার না খেয়ে সজীব স্ত্রী সুমাইয়া ও শিশু শ্যালিকা সাদিয়াকে নিয়ে ঘরের পাশের বাগানে যায়। গভীর রাত পর্যন্ত তারা বাসায় ফিরে না আসায় শাশুড়ি পারুল বেগম তাদের খুঁজতে বের হন। এক পর্যায়ে তিনি বাগানে গিয়ে দেখেন শিশু সাদিয়ার লাশ পুকুরে ভাসছে। আর পুকুর পাড়ে চালতা গাছের সঙ্গে ঝুলছে জামাই সজীবের লাশ। সুমাইয়াকে পুকুরঘাটে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তিনি। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হন। খবর পেয়ে ওই রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় সজীবের মরদেহ এবং পুকুর থেকে সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করে।

শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়া পুলিশকে জানিয়েছেন, সজীব তাদের দুই বোনকে ঘরের বাইরে নিয়ে পারিবারিক বিষয়ে ঝগড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে সজীব তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করলে সাদিয়া বাধা দিতে আসে। এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সাদিয়া ঘটনাস্থলে নিহত হয়। পরে নিজেই গাছের ডালের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। কাউনিয়া থানার ওসি নুরুল ইসলাম জানান, হত্যার কারণ অনুসন্ধানের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved