শিরোনাম
 ওসমানীতে সাড়ে ৩ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  বরিশাল আদালতের ৬ পুলিশ প্রত্যাহার  হিমছড়িতে পাহাড়ধসে ঢাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৮ জুলাই ২০১৭, ০১:০৩:৪৬

পথটা নিজেই খুঁজছেন সৌম্য

ক্রীড়া প্রতিবেদক
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বন্ধুর পথে স্বচ্ছন্দে হাঁটতে পারছেন না সৌম্য সরকার। একটি সিরিজে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন, পরেরটিতে থাকেন নিজের ছায়া হয়ে। বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত সৌম্য নিজেও। তবে আগামী মৌসুমের আগে সমাধান নিজেই বের করতে চান তিনি। হতে চান ধারাবাহিক।

সৌম্য সরকারের প্রতিভা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সম্প্রতি বাংলাদেশের ক্রিকেটের যে বদলে যাওয়া, এর অন্যতম সারথি তিনি। ২০১৫ সালে ঘরের মাটিতে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের অন্যতম রূপকার তিনি। তবে ওই তিন সিরিজের পর থেকে তার ধারাবাহিকতায় ছেদ পড়ে। এর মধ্যে গত কয়েক মাস তার ক্যারিয়ার গ্রাফের ওঠানামা ছিল চোখে পড়ার মতো। গত বছর ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ব্যর্থতার জেরে বাদ পড়েন ইংল্যান্ড সিরিজে। নিউজিল্যান্ড সফরে দলে ফিরলেও প্রথম ম্যাচেই ব্যর্থ। তাই পরের দুই ওয়ানডেতে সুযোগ মেলেনি মাঠে নামার। তবে টি২০-তে সুযোগ পেয়ে দুই ম্যাচে ভালোই করেন। টেস্টে তো আরও অনিয়মিত ছিলেন। কিন্তু ইমরুল কায়েসের ইনজুরিতে ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে সুযোগ পেয়ে খেলে দেন ৮৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। গত ফেব্রুয়ারিতে ইমরুলের চোটে ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টেও তামিম ইকবালের সঙ্গী হয়ে যান সৌম্য। যদিও খুব একটা ভালো করতে পারেননি, ১৫ ও ৪২ রান করেন দুই ইনিংসে। এরপর শ্রীলংকায় দুই টেস্টে তিনটি হাফ সেঞ্চুরি তুলে বেশ ধারাবাহিকতা দেখান। কিন্তু যেটা তার শক্তির জায়গা সে ওয়ানডেতেই শ্রীলংকায় ব্যর্থ হয়েছেন। ব্রিটেন সফরেও চলেছে এ আলো-আঁধারির খেলা। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে ৮৭ রানের অসাধারণ এক ইনিংস খেলেছিলেন। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ব্যর্থ।

ধারাবাহিকতার অভাব ভাবাচ্ছে সৌম্যকেও, 'কাজ করে যেতেই হবে। একদিন হয়তো ভালো করছি, একদিন হচ্ছে না। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে হয়তো খারাপ করেছি। তার আগের সিরিজটা আবার ভালো করেছি। সবাই হয়তো বলছে, আমি সবার কথা শুনছি না। আমি নিজেই উপলব্ধি করছি। আমার সমস্যার সমাধান আমাকেই বের করতে হবে।' সমস্যাটা কোথায় হচ্ছে সেটা কিছুটা হলেও ধরতে পারছেন তিনি, 'নিয়মিত যদি একই রকম আউট হতাম, তাহলে বুঝতাম আমার একই রকম সমস্যা। কিন্তু আউটগুলো এক রকম নয়। এ জন্য সমস্যাটা ভিন্ন। আমি চেষ্টা করছি সমস্যাগুলো সমাধান করার। রান আমাকে করতেই হবে। এটাই এখন আমার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।' সৌম্যর আউট হওয়ার ধরন নিয়েও অনেক সমালোচনা আছে। তবে সৌম্য এসব সমলোচনাকে পাত্তা দিতে নারাজ। নিজের স্বাভাবিক খেলাটা ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর তিনি, 'চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ইংল্যান্ডের সঙ্গে কিছুক্ষণ ক্রিজে ছিলাম। বাকি ম্যাচগুলো দ্রুত আউট হয়ে গেছি। আমার খেলার ধরনটাই এমন। যখন রান করি তখন ব্যাটিং দেখতে হয়তো ভালো লাগে। যখন রান না পাই তখন হয়তো ব্যাটিংটা দেখতে বাজে লাগে।'

ধারাবাহিক হওয়ার চেষ্টায় থাকা সৌম্যর সামনে বড় সবচেয়ে বড় উদাহরণ হতে পারেন তার ওপেনিং পার্টনার তামিম ইকবাল। ক্যারিয়ারের শুরুতে তামিমও ছিলেন ভীষণ আক্রমণাত্মক। তবে সময়ের সঙ্গে অনেক বদলে গেছেন তারকা এ ওপেনার। তামিমের কাছ থেকে শেখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন সৌম্যও, 'অবশ্যই তার কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। তিনি যখন স্ট্রাইকে থাকেন আমি তখন তার ব্যাটিং দেখি আর চিন্তা করি, এই বলকে আমি কী করতাম! তামিম ভাই আগে যেভাব খেলতেন এখন অনেকটাই বদলে গেছেন। তিনি এখন অনেক পরিণত। টিমের পরিস্থিতি খুব দ্রুত ধরতে পারেন। আমি উনার কাছে মাঠের বাইরে-ভেতরে উভয় জায়গাতেই শেখার চেষ্টা করি। তার আগের ব্যাটিংয়ের হাইলাইটস দেখি। আর দেখি আগে কীভাবে তিনি আক্রমণাত্মক খেলতেন, এখন কীভাবে খেলেন।'
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved