শিরোনাম
 সিদ্দিকুরকে চেন্নাই নেয়া হচ্ছে  ইতিহাস সংস্কৃতিকে তুলে ধরে উন্নত চলচ্চিত্র নির্মাণ করুন: প্রধানমন্ত্রী  সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরা পাড়ার আরেক শিশুর মৃত্যু  সংবিধানিক অধিকারকে খাঁচায় বন্দি রেখেছে সরকার: রিজভী
প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৭, ২০:০২:৩০ | আপডেট : ১৭ জুলাই ২০১৭, ২০:০২:৫২

ম্যাপ দিয়ে দিচ্ছেন, রাস্তা কোথায়: মির্জা ফখরুল

সমকাল প্রতিবেদক
ঘোষিত রোডম্যাপ স্বার্থক করতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির মহানগর কার্যালয়ের মওলানা ভাসানী মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ইসিকে বলতে চাই, আমাদের খুব পরিষ্কার কথা, আগে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করুন, তাহলে রোডম্যাপ দেওয়া স্বার্থক হবে।

তিনি বলেন, 'রাজনৈতিক দলগুলোই যদি নির্বাচনে যেতে না পারে, তাহলে আবারও ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো, ওই কুকুর-ছাগল, ভেড়া নিয়ে নির্বাচন করতে হবে। মানুষকে নিয়ে নির্বাচন করতে পারবেন না।'

‘বিএনপির ভিশন ২০৩০: নারী সমাজের উন্নয়ন ও অগ্রগতির মিশন’ শীর্ষক ওই আলোচনা সভার আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল। অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল বলেন, 'নির্বাচন কমিশন রোববার একাদশ নির্বাচনের কর্ম পরিকল্পনা দিয়েছে। খুব ভালো কথা। কিন্তু রাস্তা কোথায়? ইলেকশন করবে কে? রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়েই যদি নির্বাচন করেন, তাহলে রাস্তা কোথায়? ম্যাপ দিয়ে দিচ্ছেন, ওই করছেন, ওই করছেন, অথচ রাস্তাই নেই। সারাদেশে রাস্তা তো আপনারা খানা-খন্দ খুঁড়ে শেষ করে দিয়েছেন। বাস্তবে পুরো ঢাকা এবং বাংলাদেশে একই চিত্র। একইভাবে নির্বাচনের রাস্তাও আপনারা খানা-খন্দ খুঁড়ে শেষ করে দিয়েছেন। নির্বাচনে বিরোধী দল যাতে অংশ নিতে না পারে, তার সব ব্যবস্থা আপনারা করছেন।'

সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, 'এইসব বাদ দিয়ে সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে কথা বলে পথ বের করুন। অন্যথায় যে অপকর্ম, হত্যা-গুম-খুন-জখম, দুর্নীতি, লুটপাট করেছেন, তাতে পালাবার পথও খুঁজে পাবেন না। পালাবার একটাই পথ আছে, সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করা। অন্যথায় এদেশের মানুষ আপনাদের সত্যিই পালাবার পথ দেবে না।'

আ স ম আবদুর রবের বাসায় কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নেতার অনুষ্ঠানে পুলিশি বাগড়ার প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, 'বিএনপির কথা বাদ দিলাম।  ডা. বদরুদ্দোজা, ড. কামাল সাহেবদের মতো মানুষ ও কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নেতা রব সাহেবের বাসায় রাজনৈতিক আলোচনা করার জন্য গিয়েছিলেন। পুলিশ সেখানে গিয়ে বাঁধা দিয়েছে। আগে একদিন বলেছিলাম, দেশটা তারা বাপের তালুকদারি মনে করে। সমস্যাটা এই জায়গায়। যে কারণে তারাই সব কিছু করবে, মিটিং করবে, ইলেকশন করবে, বিনাভোটে নির্বাচন করবে, ক্ষমতায় যাবে, মন্ত্রী হবে, এমপি হবে, হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করবে। আমরা-আপনারা ওই সাধারণ মানুষ শুধু হাত তালি বাজাবো, হ্যাঁ বেশ বেশ- এটা হবে না। এটা গণতন্ত্র নয়।'

সবাইকে জেগে ওঠার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, 'সবাইকে জেগে উঠতে হবে। এটা আমার দেশ। জোর করে কেউ নিয়ে যায়, আমি কি ছেড়ে দেব। বর্গি, ব্রিটিশ ও পাকিস্তানিরা জোর করে নিয়েছিল, আমরা যুদ্ধ করে সেখান থেকে ফেরত এনেছি। সূতরাং আমরা এটাকে ছেড়ে দিব না। গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে সবাইকে প্রতিবাদ করতে হবে। অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করতে সরকারকে বাধ্য করতে হবে।'

মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন নূর জাহান ইয়াসমীন, সুলতানা আহমেদ, হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved