শিরোনাম
 কাবুলে গাড়িবোমা হামলায় নিহত ২৪  ৪১৮ যাত্রী নিয়ে প্রথম হজ ফ্লাইট ঢাকা ছেড়েছে  ভারি বৃষ্টির সাথে পাহাড় ধসের শঙ্কা, সাগরে ৩ নম্বর সংকেত  জর্ডানে ইসরায়েলি দূতাবাসে গুলি, নিহত ২
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৭, ০০:৫৩:০৯

বয়লার পরিদর্শন করবে অ্যালায়েন্স

সমকাল প্রতিবেদক
বাংলাদেশের যেসব কারখানা থেকে উত্তর আমেরিকার ক্রেতারা পোশাক আমদানি করেন সেগুলোর বয়লারের নিরাপত্তা মান যাচাই করা হবে। এ উদ্দেশ্যে নতুন করে এসব কারখানা পরিদর্শনে যাবে পোশাক খাতের সংস্কারে উত্তর আমেরিকার ক্রেতাদের জোট অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি। এ বিষয়ে বিজিএমইএর সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে জোটের পক্ষ থেকে।

গতকাল রোববার বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতা চেয়েছেন অ্যালায়েন্সের কান্ট্রি ডিরেক্টর ও বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের এক সময়কার রাষ্ট্রদূত জিম মরিয়ার্টি। ৫ বছরের নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষে আবারও মেয়াদ বৃদ্ধি এবং ধারাবাহিক সংস্কার কাজে অ্যালায়েন্সের ভূমিকা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। ২০১৩ সালে সাভারে রানা প্লাজা ধসের পর পোশাক খাতের সংস্কারের উদ্দেশ্যে ৫ বছর মেয়াদে এ জোট গঠিত হয়। আগামী জুনে এর মেয়াদ শেষ হবে।

রাজধানীতে বিজিএমইএর কার্যালয়ে আয়োজিত বৈঠকে সংগঠনের পক্ষে নেতৃত্ব দেন সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। অ্যালায়েন্স এবং অপর ক্রেতা জোট ইউরোপকেন্দ্রিক অ্যাকর্ড অন বিল্ডিং অ্যান্ড ফায়ার সেফটি বাংলাদেশের বিষয়ে সংগঠনের দায়িত্বশীল সহ-সভাপতি মাহমুদ হাসান খান বাবু, পরিচালক মিরান আলীসহ ঊর্ধ্বতনরা আলোচনায় অংশ নেন। অ্যালায়েন্সের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন জিম মরিয়ার্টি।

বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে মাহমুদ হাসান খান বাবু সমকালকে বলেন, মাল্টিফ্যাবস কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণের পর কর্মপরিবেশের নিরাপত্তায় নতুন করে বয়লারকে অন্তর্ভুক্ত করতে চায় অ্যালায়েন্স। এ বিষয়ে অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এ বিষয়ে সহযোগিতা দিতে বিজিএমইএ রাজি হয়েছে। এ ছাড়া অ্যালায়েন্সের মেয়াদ শেষ হলে তাদের পরবর্তী কার্যক্রম এবং সংস্কারের ধারাবাহিকতা রক্ষায় সরকার গঠিত রিমিডিয়েশন কো-অর্ডিনেশন সেলকে (আরসিসি) কীভাবে আরও শক্তিশালী করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

গত ২৯ জুন সন্ধ্যায় গাজীপুরের কাশিমপুরে মাল্টিফ্যাবস পোশাক কারখানার বয়লার বিস্ফোরণে ১৩ শ্রমিক নিহত হন। আহত হন ৪০ শ্রমিক। কারখানাটির সংস্কার চলছিল অ্যাকর্ডের তত্ত্বাবধানে। দুর্ঘটনার পর অ্যাকর্ডের এক বিবৃতিতে নতুন করে বয়লার পরিদর্শনের বিষয়ে চিন্তাভাবনার কথা জানায়। এতে বলা হয়, এতদিন বয়লার বিস্ফোরণের বিষয়ে কোনো চিন্তাভাবনা করা হয়নি। বাস্তবতা অনুযায়ী অ্যাকর্ড এখন ভেবে দেখবে, পরিদর্শন কার্যক্রমে বয়লারকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে কি-না। তৈরি পোশাক শ্রমিকদের অধিকার নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক জোট ক্লিন ক্লথ ক্যাম্পেইন, (সিসিসি) ইন্টারন্যাশনাল লেবার রাইটস ফোরামসহ অন্তত ৫টি আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পরিদর্শন সংস্কারে বয়লারকে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে।

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে টঙ্গীতে টাম্পাকো ফয়েলস কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে ২৩ শ্রমিক নিহত এবং আহত হন ৭৪ জন। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রতিষ্ঠান প্রধান বয়লার পরিদর্শকের কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে সাড়ে ৫ হাজার বয়লার আছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে। এর মধ্যে বর্তমানে মেয়াদোত্তীর্ণ বয়লারের সংখ্যা ৮০০টি। এ প্রতিষ্ঠানের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত জুলাই মাসে ৪৯৮টি কারখানার মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে। এর মধ্যে সংখ্যায় সবচেয়ে বেশি রয়েছে গাজীপুরের বিভিন্ন কারখানায় ১৬১টি।
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved