শিরোনাম
 কাবুলে গাড়িবোমা হামলায় নিহত ২৪  ৪১৮ যাত্রী নিয়ে প্রথম হজ ফ্লাইট ঢাকা ছেড়েছে  ভারি বৃষ্টির সাথে পাহাড় ধসের শঙ্কা, সাগরে ৩ নম্বর সংকেত  জর্ডানে ইসরায়েলি দূতাবাসে গুলি, নিহত ২
প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৭, ২১:২১:১৭ | আপডেট : ১৬ জুলাই ২০১৭, ২১:২৪:১০

রাজধানীতে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পাচ্ছে সিটি করপোরেশন

সমকাল প্রতিবেদক
রাজধানীর জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা সিটি করপোরেশনের হাতে ন্যস্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেছেন, নাগরিকদের সুবিধা-অসুবিধা দেখার দায়িত্ব সরাসরি সম্পৃক্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে সিটি করপোরেশনকেই এই দায়িত্ব পালন করতে হবে। এ জন্য ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনকে জলাবদ্ধতা নিরসনের পৃথক রোডম্যাপও তৈরি করতে হবে।

রোববার রাজধানীর গুলশান ২-এ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) নগর ভবনে রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে বিভিন্ন সেবা সংস্থার সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি ঢাকা ওয়াসার প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জলাবদ্ধতাই নগরীর বর্তমান প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ সমস্যা এক দিনে তৈরি হয়নি। জলাবদ্ধতার প্রধান কারণ ওয়াসা। আমি নিজেও স্বীকার করছি, নাগরিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হলেও ওয়াসা আজ নাগরিকদের থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছে। ওয়াসাকে বর্তমানে মানুষ কাছে পায় না। তাই নগরীর প্রধান সমস্যা দহৃর করতে ওয়াসা নয় সিটি করপোরেশনকেই প্রধান দায়িত্ব পালন করতে হবে। সঙ্গে অন্যান্য সংস্থাও কাজ করবে। সব সমস্যা সমাধানে অবশ্যই নাগরিকদেরও এগিয়ে আসতে হবে।

রাজধানীর ড্রেনেজ ব্যবস্থার বিভিন্ন অংশ ওয়াসা, রাজউক, সিটি করপোরেশন, ঢাকা জেলা প্রশাসন ও বিআইডব্লিউটিসি দেখভাল করে। এতে সমন্বয়হীনতার সৃষ্টি হয়।

ডিএনসিসি মেয়র আনিসুল হকের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও ঢাকা-১১ আসনের সংসদ সদস্য কে এম রহমতুল্লাহ। এ ছাড়া বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতিনিধি, শীর্ষ কর্মকর্তা, নগর পরিকল্পনাবিদ, স্থপতি ও কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র আনিসুল হক বলেন, বর্তমানে ওয়াসার ড্রেনেজ ব্যবস্থা আমাদের বিকলাঙ্গ সন্তান। তাকে সুস্থ করে চলার উপযোগী করে আমাদের হাতে দিন। তার পরই কেবল দায়িত্ব নিতে পারব।

জবাবে মন্ত্রী বলেন, নগরীর জলাবদ্ধতা দূর করার দায়িত্ব নিন। আপনাকে সহায়তা করার দায়িত্ব আমার। জলাবদ্ধতা দূর করতে আপনাকে অবশ্যই সাহায্য করব। এ সময় মেয়র বলেন, সরকারের সহায়তা পেলে জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রধান সমন্বয়ক সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে রাজি আছি।

গণপহৃর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন বলেন, নগরীর জলাবদ্ধতা দূরীকরণে খাল গভীর করে খনন করতে হবে। বর্তমানে ঢাকার অনেক পয়ঃবর্জ্য সরাসরি নদীতে পড়ে। নারায়ণগঞ্জের বালু নদী দেখতে গিয়ে দুর্গল্পেব্দ কয়েক মিনিটও আমি থাকতে পারিনি। ঢাকা ও আশপাশের সকল নদী খনন করতে হবে। সকল অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করতে হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ডিএনসিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শরিফ উদ্দিন খালগুলোর নাজুক চিত্র তুলে ধরেন।

মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved