শিরোনাম
 আদিলুরকে ফেরত পাঠাল মালয়েশিয়া   ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন  ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ  আইনজীবী তালিকাভুক্তি পরীক্ষা শুক্রবার
প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৭, ২২:২৩:০১

নিজের আঙ্গুল কেটেও স্ত্রীর মন গলানো গেল না

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার
স্ত্রীকে ঘরে ফিরিয়ে নিতে নিজের হাতের আঙ্গুল কেটেও ভালোবাসার প্রমাণ দিয়েও সংসার টিকাতে পারলেন না আহাদ মিয়া।

ঘটনা ঘটেছে শুক্রবার সকালে ঢাকার অদূরে আশুলিয়ার শিমুলিয়ার ইউনিয়নে।

শিমুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম সুরুজ জানান, প্রায় ১০ বছর আগে আশুলিয়ার কলতাসূতি এলাকার আয়নাল হকের মেয়ে লাকি আক্তারের সাথে গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানাধীন লতিফপুর গ্রামের  আহাদ মিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই সংসারের নানা বিষয় নিয়ে তাদেরও মধ্যে দাম্পত্য কলহ লেগেই থাকতো।

তিনি জানান, ওই দম্পত্তির চার বছর বয়সী এক ছেলে ও দুই বছর বয়সী এক মেয়ে রয়েছে। সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে স্বামী আহাদ মিয়া সংসার করতে চাইলেও ডিভোর্স চেয়ে অনড় থাকে স্ত্রী লাকি আক্তার। দুই পরিবারের লোকজন মিলে একাধিকবার বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেও ব্যার্থ হওয়ায় গত সপ্তাহে ওই দম্পত্তির মধ্যে ডিভোর্স হয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার সকালে উভয় পক্ষের লোকজন উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতির সমাধানের জন্য আশুলিয়ার পূর্ব কলতাসূতি গ্রামে তিনি যান। উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে স্বামী আহাদ আবারও লাকিকে নিয়ে সংসার করার আগ্রহ দেখায়। এসময় আহাদের পরিবারের লোকজনও লাকিকে নতুন করে সংসার শুরু করার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু লাকি ও তার পরিবার তাদের সিদ্ধান্তে অনড় থেকে দেনা-পাওনা মেটানোর জন্য চাপ সৃষ্টি করেন।

আজহারুল ইসলাম জানান, শত চেষ্টা করেও স্ত্রী লাকি আক্তারকে সংসারে ফেরাতে ব্যর্থ আহাদ মিয়া উত্তেজিত হয়ে চেয়ারম্যানের রান্না ঘরে প্রবেশ করেন। সেখান থেকে বটি এনে স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা দেখাতে নিজের হাতের একটি আঙ্গুল কেটে স্ত্রীর উড়নায় বেঁধে দেন। কিন্তু তা দেখেও স্ত্রীর মন গলেনি।

এদিকে আহত আহাদ মিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান চেয়ারম্যান।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved