শিরোনাম
 সিদ্দিকুরকে চেন্নাই নেয়া হচ্ছে  ইতিহাস সংস্কৃতিকে তুলে ধরে উন্নত চলচ্চিত্র নির্মাণ করুন: প্রধানমন্ত্রী  সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরা পাড়ার আরেক শিশুর মৃত্যু  সংবিধানিক অধিকারকে খাঁচায় বন্দি রেখেছে সরকার: রিজভী
প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০১৭, ১৩:০০:৪৭ | আপডেট : ১৩ জুলাই ২০১৭, ১৩:১৫:১৮

সীতাকুণ্ডে আক্রান্ত আরও ছয় শিশু

এম সেকান্দর হোসাইন, সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের পাহাড়ি এলাকা ত্রিপুরা পাড়ার পাশের গ্রাম পূর্ব ত্রিপুরা পাড়ায় আরও ছয় শিশু অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

বুধবার রাতে আক্রান্ত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার সকালে তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. রাশেদুল করিম।

আক্রান্ত শিশুদের মধ্যে পাঁচ জনের নাম পাওয়া গেছে। তারা হলো, পারুল ত্রিপুরা (৪), গোপাল ত্রিপুরা (৬), সুমন ত্রিপুরা (৭) তপন বাবু ত্রিপুরা (১২) ও রুমি ত্রিপুরা (৬)।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. রাশেদুল করিম জানান, ত্রিপুরা পাড়া থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে পূর্ব ত্রিপুরা পাড়ায় আরও ছয় শিশু আক্রান্ত হয়েছে। তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, অজ্ঞাত রোগ নির্ণয় করতে কাজ শুরু করেছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআর। বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিষ্ঠানের পাঁচ সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি হাসপাতালে কাজ শুরু করে। দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ডা. ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া।

এদিকে ত্রিপুরা পাড়ার পাশে গ্রামে বৃহস্পতিবার তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া।

সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরা পাড়ায় অজ্ঞাত  রোগে এক সপ্তাহে অন্তত ৯ শিশু মারা যায়। এর মধ্যে বুধবার মারা যায় চার শিশু। ওইদিন বিকেল পর্যন্ত ত্রিপুরা পাড়ার রোগাক্রান্ত ৪৬ শিশুকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মধ্যম সোনাইছড়ি এলাকার ত্রিপুরা পাড়ায় বেশিরভাগ শিশুই ওই রোগে আক্রান্ত হয়েছে। নিহত ও রোগাক্রান্ত সবাই শিশু; তাদের বয়স এক থেকে ১২ বছর।

বুধবার বিকেলে ঘটনাস্থলে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী সাংবাদিকদের বলেন, 'রোগটি অজ্ঞাত ভাইরাসজনিত হতে পারে। ঢাকা থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নির্ণয় ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) একটি প্রতিনিধি দল আসছে। তারা রোগের আলামত সংগ্রহ করে এই রোগ সম্পর্কে বলতে পারবে। আক্রান্ত রোগীদের চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হচ্ছে। তাদের জন্য আলাদা একটি ইউনিট খোলা হয়েছে।'

নিহত শিশুরা হলো—তাকিপতি (১২), জানিয়া (৫), প্রকাতি (৬), রমাপতি (৯), কানাইয়া (২), রূপালী (৩), কসম রায় (৮), শিমুল (২) এবং হৃদয় (৮)।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved