শিরোনাম
 সাত খুন মামলায় ১৫ জনের ফাঁসি বহাল, ১১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড  প্রধান বিচারপতির সঙ্গে গওহর রিজভীর সাক্ষাৎ  বিবিএস ক্যাবলসের অস্বাভাবিক দর তদন্তে কমিটি  বন্যাদুর্গত এলাকায় কৃষি ও এসএমই ঋণ পুনঃতফসিলের সুযোগ
প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৭, ১৯:৫৩:২১ | আপডেট : ১৯ জুন ২০১৭, ১৯:৫৫:৩৪

বজ্রপাতে ৩ জেলায় ৬ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক
দেশের ফরিদপুর, কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালী এই তিন জেলায় বজ্রপাতের মা-ছেলেসহ ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার দিনের বিভিন্ন সময় এ ঘটনা ঘটে।

এরমধ্যে বজ্রপাতে ফরিদপুর জেলায় চার জন এবং কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালীতে একজন করে মারা যান। সমকালের প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ নিচে তুলে ধরা হলো-

নগরকান্দা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

ফরিদপুরের সালথায় উপজেলায় বজ্রপাতে মা ছেলেসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার গট্রী ইউনিয়নের ভাবুকদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায়, ভারীবর্ষণে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ বজ্রপাত হয়। এ সময় ভাবুকদিয়া গ্রামের সিরাজ খানের বাড়ির রান্না ঘরের বজ্রপাত আঘাত করে। এতে রান্না ঘরে থাকা সিরাজ খানের স্ত্রী হেলেনা বেগম (৩৫) ও তার ছেলে হেলাল খান (১২) ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়।

অপরদিকে, একই গ্রামের আব্দুর রহমান খানের ছেলে মিলন খান (৩০) মাঠ থেকে বাড়ি ফেরার সময় বজ্রপাতে তার শরীর ঝলসে গিয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান।

চরভদ্রাসন (ফরিদপুর)প্রতিনিধি

ফরিদপুরের চরভদ্রাসনের হরিরামপুর ইউনিয়নের ছমির ব্যাপারির ডাঙ্গীর ফসলি মাঠে বজ্রপাতে শেখ আদেল (৪০) নামে এক দিন মুজুরের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শেখ আদেল কুষ্টিয়া জেলার মেহেরপুর মিরপুর গ্রামের শেখ বাদল ডাক্তারের ছেলে।

হরিরামপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদের বিল্লাল মেম্বার জানান, বৃষ্টির মধ্যে শেখ আদেলসহ তিন কৃষক ক্ষেতে কাজ করছিলেন। হঠাৎ শক্তিশালী এক বজ্রপাতে আক্রান্ত হয়ে ঘটনাস্থলেই আদেলের মৃত্যু হয়।

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মাঠে ঘাস কাটতে গিয়ে বজ্রপাতে বাদশা নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। এ সময় তার ছোট ভাই রাজা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ভারত সীমান্ত সংলগ্ন রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের সোনাতলা ঠাকুরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, ঠাকুরপাড়া গ্রামের রাজ্জাকের দুই ছেলে রাজা ও বাদশা সকালে স্থানীয় একটি মাঠে গরুর ঘাস কাটতে যাওয়ার পর বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হয়। এ সময় বজ্রপাত হলে বড় ভাই বাদশা ঘটনাস্থলেই মারা যান। এলাকাবাসী আহত অবস্থায় রাজাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করে।    

পটুয়াখালী প্রতিনিধি 

পটুয়াখালীর দুমকিতে বজ্রপাতে লেবুখালী আঙ্গারিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক আবদুল কাদের গাজী (৫০) নিহত হয়েছেন।

সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার উত্তর শ্রীরামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার সময় শিক্ষক কাদের গাজী টিউবওয়েলে গোসল করার সময় আকস্মিক বজ্রপাত ঘটলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। তার বাড়িও উত্তর শ্রীরামপুর গ্রামে। কাদের গাজী একই গ্রামের মৃত আবদুল মজিদ গাজীর ছেলে।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved