শিরোনাম
 এক মাস কঠোর সংযমের পর এলো খুশির ঈদ  ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত  ঈদের জামাতে দেশের কল্যাণ কামনা
প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৭, ১৩:০১:১৫ | আপডেট : ১৫ জুন ২০১৭, ১৪:৩৮:১৩

ঝুঁকিপূর্ণ বসতির ক্ষেত্রে রাজনৈতিক প্রভাব সহ্য করা হবে না: ওবায়দুল কাদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো
পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতির ক্ষেত্রে কোনো ধরনের রাজনৈতিক প্রভাব সহ্য করা হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, 'পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতির ক্ষেত্রে কোনো ধরনের রাজনৈতিক প্রভাব সহ্য করা হবে না। এসব ক্ষেত্রে যেকোনো রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে।'

বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম নগরীর টাইগারপাসে বাটালিহিল পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, 'দুর্যোগের আগে বার বার সতর্ক করা হলেও পাহাড়ে পাদদেশে বসবাসকারীরা বাড়ি-ঘর ছেড়ে যায় না। এ কারণে এত ক্ষয়ক্ষতি হয়।'

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'একজন জনপ্রতিনিধির প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ বসতিতে বসবাসকারী মানুষদের সরিয়ে নেওয়া। আপনারা এটাকে বলেন উচ্ছেদ, কিন্তু আমি বলবো উদ্ধার। উদ্ধারের জন্য প্রয়োজন হলে বলপ্রয়োগ করেও তাদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে আনতে হবে।'

সেতুমন্ত্রী বলেন, 'এ ধরনের দুর্যোগ যে আগামী বছর হবে না তা আমরা হলফ করে বলতে পারি না। এ দুর্যোগের জন্য আমি দায়ী করবো অপরিকল্পিত বসতি ও আমাদের মানসিকতা।'

তিনি বলেন, 'নগরীতে জলাবদ্ধতা দূর করতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনকে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দিতে হবে।'

রাঙামাটিতে বেশি প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার কারণ হিসেবে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'সেখানে প্রতিরোধমূলক দেয়াল বা রিটেইনিং ওয়াল ছিল না।'

এসময় মন্ত্রীর সঙ্গে অন্যদের মধ্যে ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাসিরউদ্দিন, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী, স্থানীয় সংসদ সদস্য আফসারুল আমিন।

প্রসঙ্গত, নিম্নচাপের প্রভাবে প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত রাঙামাটি, চট্টগ্রাম, বান্দরবান, কক্সবাজার ও খাগড়াছড়িতে ১৫০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved