শিরোনাম
 এক মাস কঠোর সংযমের পর এলো খুশির ঈদ  ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত  ঈদের জামাতে দেশের কল্যাণ কামনা
প্রকাশ : ১৭ মে ২০১৭, ২০:১১:৫৮ | আপডেট : ১৭ মে ২০১৭, ২৩:৩৩:৩৮

কিউইদের কাছে হেরেই গেল বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক
কেন উইলিয়ামসন, মার্টিন গাপটিল, ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি- চার তারকা ক্রিকেটারকে ছাড়াই ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলতে এসেছে নিউজিল্যান্ড। সেই তুলনায় বাংলাদেশ পূর্ণশক্তির দল। কিন্তু তারপরও মাঠের খেলায় কিউইদের সঙ্গে পেরে ওঠেনি টাইগাররা। বুধবার বাংলাদেশকে ৪ উইকেটে পরাজিত করেছে নিউজিল্যান্ড।

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে জয়ের স্বপ্ন নিয়ে মাঠে নামা বাংলাদেশ বৃষ্টির কারণে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে। সেই হতাশা কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে বুধবার মাঠে নামে টাইগাররা। তবে হারের হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় মাশরাফির দলকে।

ডাবলিনের ক্লনটার্ফ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৫৭ রানে আটকে যায় বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে টপ ও মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় ৯ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে টম ল্যাথাম ৫৪, জেমস নিশাম ৫২ ও নেইল ব্রম করেন ৪৮ রান। এছাড়া লুক রনকি ২৭, রস টেলর ২৫ এবং জর্জ ওর্কার করেন ১৭ রান। কলিন মুনরো ১৬ এবং মিচেল স্যান্টনার ৫ রান নিয়ে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। মাশরাফি নেন একটি উইকেট।

ল্যাথাম ও রুক রনকি উদ্বোধনী জুটিতে ৩৯ রান তোলে বাংলাদেশকে চাপে ফেলে দেন। মোস্তাফিজুর রহমানের আঘাতে হাসি ফিরে বাংলাদেশ শিবিরে। ফিজের করা সপ্তম ওভারের শেষ বলে স্লোয়ারে 'নাকাল' হয়ে মিড-অফে মাহমুদউল্লাহকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন রনকি।

তবে এরপর কিউই দাপটে ফের কোণঠাসা হয়ে পড়ে বাংলাদেশ। জর্জ ওর্কার ও টম ল্যাথাম মিলে দারুণ জুটি গড়ে বাংলাদেশকে ব্যাকফুটে ঠেলে দেন। দলীয় ৮০ রানের মাথায় ওর্কার রানআউট হয়ে ফিরে গেলে কিছুটা চাপমুক্ত হয় টাইগাররা।

রনকি ফিরে যাওয়ার পর ক্রমেই বিপজ্জনক হয়ে উঠছিলেন ল্যাথাম-টেলর জুটি। দলীয় ১১০ রানের মাথায় রুবেলের দুর্দান্ত ডেলিভারিতে ল্যাথাম উইকেটের পেছনে মুশফিককে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলে ম্যাচে ফেরার স্বপ্ন দেখে বাংলাদেশ।

ল্যাথামের বিদায়ের পর ব্রম ও টেলর জুটি বাঁধেন। এই জুটি বিপজ্জনক হয়ে ওঠার আগেই দলীয় ১৪৭ রানের মাথায় টেলকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন মোস্তাফিজ। তবে ব্রম ও নিশামের ৮০ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়ে বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ছিটকে দেন। দলীয় ২২৭ রানের মাথায় রুবেলের বলে ব্রম লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ফিরে গেলেও বিপদে পড়েনি কিউইরা।

ব্রুমের পর দলীয় ২৪১ রানের মাথায় মাশরাফির বলে মোসাদ্দেক হোসেনকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন নিশাম। এরপর মুনরো ও স্যান্টনার ১৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন।

এর আগে ডাবলিনের ক্লনটার্ফ ক্রিকেট গ্রাউন্ড মাঠে টসে জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় নিউজিল্যান্ড। আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনার সৌম্য এবং মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তা সত্ত্বেও শেষদিকে তালগোল পাকিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৫৭ রানে আটকে যায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের হয়ে সৌম্য ৬৭ বলে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন। এছাড়া মুশফিক ৫৫, মাহমুদউল্লাহ ৫১ ও মোসাদ্দেক করেন ৪১ রান। তামিম ২৩ রান করলেও সাকিব (৬) ও সাব্বির (১) ব্যাট হাতে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দেন।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন হামিশ বেনেট। দুটি করে উইকেট নেন জেমস নিশাম ও ইশ সোধি। মিচেল স্যান্টনার নেন একটি উইকেট।

উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ও সৌম্য মিলে ৭৭ রান তোলে দারুণ কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। কিন্তু ২ রানের ব্যবধানে তামিম ও সাব্বিরের বিদায়ে চাপে পড়ে যায় টাইগাররা। নিশামের বলে কলিন মুনরোকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তামিম। স্যান্টনারের করা পরের (১৭তম) ওভারের চতুর্থ বলে বোল্ড হয়ে তামিমকে অনুসরণ করেন সাব্বির।

দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে টেনে তোলেন ৩৮ রানের জুটি গড়া সৌম্য-মুশফিক। তবে দলীয় ১১৭ রানের মাথায় বল আকাশে তুলে দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন সৌম্য। কিছুক্ষণ পর মিড-অফে জিমি নিশামকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন সাকিব। ফলে ফের চাপের মুখে পড়ে বাংলাদেশ দল।

চাপের মুখে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ মিলে ৪৯ রানের জুটি গড়ে বাংলাদেশকে চাপমুক্ত করেন। মুশফিক হাফসেঞ্চুরি করে ফিরে যাওয়ার পর মোসাদ্দেক ও মাহমুদউল্লাহ ৬১ রানের জুটি গড়লে মজবুত ভিত পায় টাইগাররা। তবে শেষদিকে তালগোল পাকিয়ে ২৫৭ রানেই আটকে যায় বাংলাদেশ। শেষ ১৭ বলে মাত্র ১৫ রান করতে সক্ষম হয় টাইগাররা; হারায় ৪ উইকেট। হার দিয়েই যেটির মাশুল দেয় টাইগাররা।

নিজেদের পরের ম্যাচে আগামী শুক্রবার ডাবলিনের ম্যালাহাইডে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। অন্যদিকে রোববার নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে আইরিশদের বিপক্ষে খেলবে নিউজিল্যান্ড।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, মোসাদ্দেক হোসেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ রুবেল হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মোস্তাফিজুর রহমান।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: লুক রনকি, টম ল্যাথাম, জর্জ ওর্কার, রস টেলর, নেইল ব্রম, জেমস নিশাম, কলিন মুনরো, হামিশ বেনেট, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি ও শেঠ রাঁচি।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved