শিরোনাম
 সিদ্দিকুরকে চেন্নাই নেয়া হচ্ছে  ইতিহাস সংস্কৃতিকে তুলে ধরে উন্নত চলচ্চিত্র নির্মাণ করুন: প্রধানমন্ত্রী  সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরা পাড়ার আরেক শিশুর মৃত্যু  সংবিধানিক অধিকারকে খাঁচায় বন্দি রেখেছে সরকার: রিজভী
প্রকাশ : ১৭ মে ২০১৭, ১৮:৩৯:২৫ | আপডেট : ১৭ মে ২০১৭, ১৮:৩৯:৫০

চট্টগ্রামে দুই বিএনপি নেতাকে অব্যাহতি, একজনকে সতর্ক

চট্টগ্রাম ব্যুরো
চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গাজী শাহাজাহান জুয়েল ও উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসানকে দলের সব পর্যায়ের পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহদফতর সম্পাদক বেলাল আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জুয়েল ও হাসানকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়।

দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িত থাকায় বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৫ (গ) ধারা মোতাবেক তাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন না করায় বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান শামীমকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে তাকে।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান সমকালকে বলেন, ‘বিনা দোষে আমাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। প্রতিনিধি সভায় যখন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে তখন আমি সেখানে ছিলাম না। খবর পেয়ে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করতে গিয়ে নিজেও লাঞ্ছিত হয়েছি। তারপরও আমি বিএনপি চেয়ারপারনসনের প্রতি আমার আস্থা ও আনুগত্য রয়েছে। আশাকরি আমি সুবিচার পারো।’

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গাজী শাহজাহান জুয়েল বলেন, ‘জন্মলগ্ন থেকেই আমি বিএনপির সঙ্গে আছি। শহীদ জিয়ার হাত ধরে ছাত্রদলের প্রথম কমিটির মাধ্যমে রাজনীতিতে যুক্ত হই। দেশে বিএনপি সৃষ্টি না হলে রাজনীতিতে আসতাম কিনা সন্দেহ। তাই দলের যে পর্যায়েই থাকি না কেনো চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রতি শর্তহীন আনুগত্য থাকবে এবং চলমান আন্দোলনে স্বতঃস্ফুত অংশ গ্রহণ অব্যাহত রাখবো।'

বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান শামীম বলেন, ‘আমি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি। তারপরও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে গেছে। তাই দল থেকে আমাকে আরো সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।এটাকে আমি ইতিবাচক হিসেবে নিয়েছি।’

সূত্র জানায়, ২ ও ৩ মে চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়। নগরীর নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রতিনিধি সভায় উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আবদুল্লাহ আল হাসান সমর্থকদের সঙ্গে আহ্বায়ক লায়ন আসলাম চৌধুরীর (বর্তমানে কারাবন্দি) সমর্থকদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। অন্যদিকে জেলার পটিয়ায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে দক্ষিণ জেলা বিএনপির প্রতিনিধি সভায় জেলা বিএনপির সহ সভাপতি এনামুল হক এনামের সমর্থকদের সঙ্গে দলের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান জুয়েল অনুসারিদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। এতে এনাম ও তার অনুসারি বেশ কয়েক জন নেতাকর্মী জখম হয়। চট্টগ্রামের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved