শিরোনাম
 ১১ মে পবিত্র শবে বরাত  শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা থেকে আবুসহ ৪ মরদেহ উদ্ধার  লোডশেডিং কমাতে বিশ্বব্যাংকের ৪৭২ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন  শুধু ব্যক্তি নয়, উগ্র মতাদর্শের বিরুদ্ধে লড়তে হবে: ক্যামেরন
প্রকাশ : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ২২:২৫:৫৮

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো নিয়ে অভিন্ন পর্যটন প্ল্যাটফর্ম গড়তে হবে: মেনন

সমকাল প্রতিবেদক
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, নেচার, কালচার ও অ্যাডভেঞ্চার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোকে অভিন্নতা দিয়েছে। তাই পর্যটন গন্তব্য হিসেবে এ অঞ্চলকে তুলে ধরতে অভিন্ন প্ল্যাটফর্ম থেকে নিরবচ্ছিন্ন প্রচার চালাতে হবে। এ জন্য বৈদেশিক নীতি, ভিসা প্রক্রিয়া যেমন পর্যটকবান্ধব হতে হবে, তেমনি স্বল্পখরচে, স্বাচ্ছন্দ্যে নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করতে হবে। বিশ্ব অর্থনীতিতে পর্যটনের গুরুত্ব বিবেচনায় এখনই সময় এ উদ্যোগ গ্রহণের।

শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান, নেপাল, শ্রীলংকা ও মিয়ানমারের সমন্বয়ে গঠিত পর্যটন সংস্থা 'উই এশিয়া'র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ছয়টি দেশের পর্যটন খাতের উন্নয়নে যৌথভাবে কাজ করবে 'উই এশিয়া'। দেশগুলোর ছয়টি পর্যটন প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে গড়ে তুলেছে এ সংস্থা। এ অঞ্চলের পর্যটকদের ওয়ানস্টপ সেবা দেওয়াই হবে এর মূল কাজ।

বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, এ অঞ্চলের মানুষ অভিন্ন আবেগ, অনুভূতিকে ধারণ করে। রাজনৈতিক সীমানা এ আবেগকে আটকাতে পারে না। সারাবিশ্ব এখন এক ও অখণ্ড। তাই এ অঞ্চলের দেশগুলোকে যে কোনো সফল উদ্যোগ বাস্তবায়নে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

উই এশিয়ার অন্যতম উদ্যোক্তা ও জার্নিপ্লাসের প্রধান নির্বাহী তৌফিক রহমান বলেন, ইউরোপের কোনো পর্যটক এ ছয়টি দেশের কোনো একটিতে ঘুরতে এলে বাড়তি কিছু খরচ করে আরও দুটি দেশ ঘুরতে চান। কিন্তু এতে পর্যটকদের অনেক সময় ভোগান্তি পোহাতে হয়। উই এশিয়ার মাধ্যমে পর্যটকদের ওয়ানস্টপ সেবা দেওয়া হবে।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন টোয়াব সভাপতি তৌফিক উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ মনিটরের সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম, উই এশিয়ার পশ্চিমবঙ্গের প্রতিনিধি সত্যপ্রদ দেব প্রমুখ।

পর্যটন মেলার শেষ দিন শনিবার : এদিকে টুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টোয়াব) উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চলমান পর্যটন মেলার শুক্রবার ছিল দ্বিতীয় দিন। এদিন বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় 'আঞ্চলিক পর্যটন উদ্যোগ : পরবর্তী পদক্ষেপ' শীর্ষক সেমিনার।

শনিবার মেলার শেষ দিন বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের আয়োজেন 'তরুণ পর্যটন পেশাজীবী : বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ' শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৫টায় মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ত্রিপুরার পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব এ কে ভট্টাচারিয়া। সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা আবদুল মুয়ীদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন নেপাল ট্যুরিজম বোর্ডের ব্যবস্থাপক নবীন ফকরেল, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মিরাজ, মিয়ানমারের ক্যালভিন, কম্বোডিয়ার প্রতিনিধি মারিও অ্যান্থনি, ট্যুর অ্যান্ড ট্রাভেল অ্যাসোসিয়েশন অব নেপালের সভাপতি মধুসূদন আচারিয়া, বেঙ্গল ইনের নির্বাহী পরিচালক আবদুুল আজিজ প্রমুখ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শুদ্ধ ব্রত দেব।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved