শিরোনাম
 ১১ মে পবিত্র শবে বরাত  শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা থেকে আবুসহ ৪ মরদেহ উদ্ধার  লোডশেডিং কমাতে বিশ্বব্যাংকের ৪৭২ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন  শুধু ব্যক্তি নয়, উগ্র মতাদর্শের বিরুদ্ধে লড়তে হবে: ক্যামেরন
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ০০:১০:২০

যুক্তরাষ্ট্রের 'প্রতারণা'য় ক্ষুব্ধ দক্ষিণ কোরিয়া

সমকাল ডেস্ক
কোরীয় উপদ্বীপে যুদ্ধজাহাজ পাঠানোর কথা বলেও পরে সিদ্ধান্ত পাল্টানোর কারণে ট্রাম্পের ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। সিউল বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র প্রতারণামূলক কথা বলেছে। তবে এমন পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রশংসা করেছে চীন। একই সঙ্গে পরমাণু যুদ্ধের হুমকি ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গোলমালে জড়িয়ে পড়ার জন্য উত্তর কোরিয়াকে নিয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে দেশটি। বেইজিং জানিয়েছে, যুদ্ধের উত্তেজনা বাড়াতে পারে এমন বক্তব্য কিংবা কর্মকাণ্ডের বিরোধী তারা। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রকে 'বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করার' জন্য হুঁশিয়ারি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির মুখপত্র রোদোং সিনমুন এ হুঁশিয়ারি দেয়। পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি বন্ধে উত্তর কোরিয়াকে চাপ প্রয়োগ করা হবে_ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের এমন হুমকির জবাবে পিয়ংইয়ং থেকে এ হুঁশিয়ারি দেওয়া হলো। খবর বিবিসি, সিএনএন ও এএফপির।

পরমাণু ইস্যুতে উত্তর কোরিয়াকে শায়েস্তা করতে কোরীয় উপদ্বীপে যুদ্ধজাহাজ পাঠানোর কথা বলেছিল যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও ঘোষণা দিয়েছিলেন, পিয়ংইয়ংয়ের হুমকি মোকাবেলায় 'আর্মাদা' পাঠানো হচ্ছে। তবে কয়েক দিন পর জানা গেল, মার্কিন যুদ্ধজাহাজ কার্ল ভিনসন কোরীয় উপদ্বীপের দিকে নয়, সেটি যাচ্ছে ভারত মহাসাগরের দিকে। লক্ষ্য সম্ভবত অস্ট্রেলিয়া। এমন পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ তুলেছে দক্ষিণ কোরিয়া। তাদের মতে, এ ধরনের ঘটনা আগামী ৯ মে'র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে পারে।

প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে প্রচারে হং জুন পায়ো বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যা বলেছিলেন, তা দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু যখন তা মিথ্যায় পর্যবসিত হলো, তখন আগামীতে ট্রাম্প যা বলবেন, তাতে বিশ্বাসযোগ্যতার কিছু থাকবে না। সিউলের পত্রিকাগুলোতেও 'কার্ল ভিনসন মিথ্যাচার' শিরোনামে খবর প্রকাশ করেছে।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবহর ফিরে যাওয়ায় খুশি চীন। বেইজিংয়ের মধ্যস্থতায় কোরীয় উপদ্বীপে শান্তিপূর্ণ সমাধানের কথা বলায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রশংসা করেছে উত্তর কোরিয়ার মিত্র দেশটি। তবে একই সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু হামলার হুমকির নিন্দা জানিয়ে বলেছে, পিয়ংইয়ংকে নিয়ে তারা খুবই উদ্বিগ্ন। এক সংবাদ সম্মেলনে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু ক্যাং বলেন, 'কোরিয়া সংকট নিয়ে ইতিবাচক ও গঠনমূলক কথা বলেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্যে কোরিয়া সংকট নিরসনের একটি পথ পাওয়া যেতে পারে।'

চীন বলেছে, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্রের উন্নয়ন নিয়ে শঙ্কিত তারা। যুক্তরাষ্ট্র হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে_ এমনটি বুঝতে পারলে পিয়ংইয়ং আগেই পরমাণু হামলা চালাবে বলে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঘোষণার পর এ উদ্বেগ জানাল চীন। চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চীন যুদ্ধের উত্তেজনা বাড়াতে পারে এমন ধরনের বক্তব্য কিংবা কর্মকাণ্ডের বিরোধী।

'বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করার' জন্য হুঁশিয়ারি :যুক্তরাষ্ট্রকে 'বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করার' জন্য হুঁশিয়ারি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি বন্ধে উত্তর কোরিয়ার ওপর চাপ প্রয়োগ করা হবে_ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের এমন হুমকির জবাবে পিয়ংইয়ং থেকে এ হুঁশিয়ারি দেওয়া হলো। দেশটির ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির মুখপত্র রোদোং সিনমুনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের উচিত হবে না আমাদের সঙ্গে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা। এ ধরনের কিছু হলে ব্যাপক শক্তিশালী হামলা চালানো শুরু হবে। এতে তাৎক্ষণিকভাবে দক্ষিণ কোরিয়া ও এর আশপাশে সাম্রাজ্যবাদী যুক্তরাষ্ট্রের দখলদার বাহিনীকে শুধু সম্পূর্ণভাবে মুছে ফেলা হবে না, যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডও ছাইয়ে পরিণত করা হবে।'

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে যুদ্ধ শুরুর আশঙ্কায় কোরিয়ার সঙ্গে ১১ মাইল দীর্ঘ সীমান্তে সেনা, সমরাস্ত্র ও সাঁজোয়া যান পাঠাচ্ছে রাশিয়া। দেশটির আশঙ্কা যুদ্ধ শুরু হলে এ সীমান্ত দিয়ে উদ্বাস্তুদের স্রোত রাশিয়ায় প্রবেশের চেষ্টা করবে। গতকাল ডেইলি মেইল অনলাইন এ তথ্য জানায়। আগের দিন একই আশঙ্কায় উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সীমান্তে দেড় লাখ সেনা জড়ো করেছে চীন।
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved