শিরোনাম
 ঘূর্ণিঝড় 'মোরা': চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত  অস্ট্রিয়ার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ  দিনাজপুরে অটোরিকশার সাথে সংঘর্ষের পর বাস খাদে, নিহত ৩  নতুন ভ্যাট আইনে সংকট তৈরি হবে
প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৭, ২১:৩২:৩৭ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৭, ২২:৩১:৫৬

রাঙামাটিতে ঐতিহ্যবাহী জলকেলি উৎসব

রাঙামাটি অফিস
ব্যাপক উৎসাহউদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রোববার রাঙামাটির কাউখালীতে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী ‘জলকেলি’ উৎসব উদযাপিত হয়েছে।
 
পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসীদের বিজু-সাংগ্রাই-বৈসুক-বিষু-বিজু-সাংক্রান উৎসবের অংশ হিসেবে মারমা সম্প্রদায় পুরাতন বছরের গ্লানি, দুঃখ, অপশক্তিকে ধুয়েমুছে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে এ জল উৎসবের আয়োজন করে থাকে।
 
জনশ্রুতি রয়েছে, জলকেলি উৎসবের মাধ্যমে মারমা যুবক-যুবতীরা একে অন্যের সাহচর্যে আসার সুযোগ পায়। এ সময় তারা তাদের প্রিয় মানুষটি বেছে নেওয়ার কাজটিও সফলভাবে করে নেয়।
কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে কেন্দ্রীয় মারমা সংস্কৃতি সংস্থার (মাসস) আয়োজনে দিনব্যাপী উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং এমপি। মারমা সাংস্কৃতিক সংস্থার সভাপতি অংসউপ্রু চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা প্রশাসক মো. মানজারুল মান্নান, ৩০৫ পদাতিক রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুক, রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল রোদেয়ান উল হক, জেলা পরিষদ সদস্য মো. মুছা মাতব্বর ও রাঙামাটি পৌরসভা মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংগ্রাই উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অংচা প্রু মারমা। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মারমা সাংস্কৃতিক সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মংচিং মারমা ময়না।
 
এরআগে ফিতা কেটে জলকেলি উৎসবের উদ্বোধন করেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। এরপর বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় পানিখেলা। পানিখেলা মূলত অবিবাহিত তরুণ-তরুণীরা একে অপরকে পানি ছিটিয়ে ভিজিয়ে দেয়। এতে বিগত বছরের সব পাপ ও জরাজীর্ণতা ধুয়েমুছে যায় বলে তাদের বিশ্বাস। পাশাপাশি দিনভর নৃত্যসঙ্গীত পরিবেশন করেন মারমা সম্প্রদায়ের শিল্পীরা।
 
হাজার হাজার পাহাড়ি-বাঙালি নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোরের উপস্থিতিতে উৎসবস্থল মিলনমেলায় পরিণত হয়।
 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় পার্বত্য শান্তিচুক্তির ফলে পার্বত্য চট্টগ্রামে যে পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে, তার কারণে স্বতঃস্ফূর্ত আনন্দ উৎসবে শামিল হতে পারছে পাহাড়ের মানুষ।
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved