শিরোনাম
 ভাস্কর্য সরানোর বিক্ষোভে টিয়ার শেল, আটক ৪  বাসের ধাক্কায় জাবির দুই শিক্ষার্থী নিহত  খুলনায় বিএনপি নেতা হত্যার প্রতিবাদে শনিবার হরতালের ডাক   সরানো হলো সুপ্রিম কোর্টের ভাস্কর্য
প্রকাশ : ২০ মার্চ ২০১৭, ১৯:০৭:৩৬

সাগরে ৩ ট্রলারে ডাকাতি, দুই জেলে গুলিবিদ্ধ

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি
কক্সবাজারের সেন্টমার্টিনের পশ্চিমে বঙ্গোপসাগরে তিনটি মাছ ধরার ট্রলারে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। জলদস্যুদের গুলিতে আহত হয়েছেন দুই জেলে। এছাড়া দস্যুদের মারধরের শিকার হয়েছেন আরও অন্তত ১২ জেলে।

উপকূল থেকে প্রায় ৩০-৪০ কিলোমিটার দূরে গভীর সাগরে শনিবার রাতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ করেছেন জেলেরা।

গুলিবিদ্ধ দুই জেলে হলেন— কক্সবাজার পিটি স্কুল এলাকার মকবুল আহমদ (৫০) ও উখিয়ার কুতুপালং গ্রামের আব্দুস শুক্কুর কামাল (৪০)।

কোস্টগার্ড শাহপরীর দ্বীপ স্টেশনের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার আব্দুল মোতালেব বলেন, উপকূল থেকে প্রায় ৩০-৪০ কিলোমিটার দূরে সাগরে ট্রলারের ডাকাতি খবর শুনেছি। জেলেদের মারধর করে ডাকাতরা তাদের মাছ, জালসহ মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ এসেছে।

তিনি জানান, সোমবার সকাল ৬টার দিকে কূলে ফিরে আসা জেলেরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার কক্সবাজার পৌরসভার নুনিয়াছড়া এলাকার মোহাম্মদ মোজাম্মেলের মালিকানাধীন এফবি মোজাম্মেল, টেকনাফে শাহপরীর দ্বীপের বাজারপাড়ার মোহাম্মদ কায়সারের এফবি কায়সার ও শাহপরীর দ্বীপের মাঝেরপাড়া এলাকার নুর হোসেনের মালিকানাধীন এফবি নুর নামে তিনটি ট্রলার বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যায়। শনিবার রাত ১১টার দিকে সেন্টমার্টিনের পশ্চিমে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় দস্যুরা ট্রলারে হামলা চালায়। তারা ট্রলারে উঠে জেলেদের মারধর করতে থাকে। এ সময় দস্যুরা গুলি চালালে এফবি মোজাম্মেলের জেলে মকবুল আহমদ ও আব্দুস শুক্কুর গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়া দস্যুদের মারধরে আহত হন আরও ১২ জন জেলে। দস্যুরা মাছ, জাল, তেল, খাবার, মুঠোফোনসহ অন্তত আট লাখ টাকার মালামাল লুটে নিয়ে যাওয়ার সময় ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল করে দেয়। পরে ভাসমান অবস্থায় থেকে সোমবার সকালে অপর একটি মাছ ধরার ট্রলারের সহায়তায় সেন্টমার্টিন জেটি ঘাটে পৌঁছায় জেলেরা।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তুষার আহমদ বলেন, বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মো. শফিউল আলমের মাধ্যমে বিষয়টি শোনার পর সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করে গুলিবিদ্ধ জেলেদের টেকনাফে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয় এবং ইউএনওর সহযোগিতায় জেলেদের আর্থিক সহযোগিতায় উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার পাঠানো হয়।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুপ্তা দাশ বলেন, গুলিবিদ্ধ দুই জেলের শরীরে একাধিক গুলির চিহ্ন রয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইন উদ্দিন খাঁন বলেন, এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ থানায় কোনো ধরনের অভিযোগ করেনি।

আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved