শিরোনাম
 কাবুলে গাড়িবোমা হামলায় নিহত ৩৫  ৪১৮ যাত্রী নিয়ে প্রথম হজ ফ্লাইট ঢাকা ছেড়েছে  ভারি বৃষ্টির সাথে পাহাড় ধসের শঙ্কা, সাগরে ৩ নম্বর সংকেত  জর্ডানে ইসরায়েলি দূতাবাসে গুলি, নিহত ২
প্রকাশ : ০৭ মার্চ ২০১৭, ১৬:৩৮:২৩ | আপডেট : ০৭ মার্চ ২০১৭, ১৬:৫৩:৩১

বাংলাদেশের গান গেয়েই যাত্রা 'দোহার' ব্যান্ডের

অনলাইন ডেস্ক
বাংলাদেশের গান দিয়েই যাত্রা কলকাতার জনপ্রিয় ব্যান্ড দোহারের। মঙ্গলবার সকালে সড়ক দূর্ঘটনায় মারা গেলেন এ ব্যান্ডের প্রধান গায়ক কালিকাপ্রসাদ। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ সফরের সময় সমকালকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে দোহার ব্যান্ডের দলনায়ক কালিকাপ্রসাদ বলেন, বাংলাদেশের গান দিয়েই তাদের যাত্রা শুরু হয়। তার সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে লেখা প্রতিবেদনটি সমকালে ছাপা হয় ২০১৩ সালের ২৩ অক্টোবর। পাঠকের জন্য প্রতিবেদনটি হুবহু তুলে ধরা হলো
 
সোমেশ্বর অলি
------------
লোকশিল্পী নয়, নিজেদের লোক গানের শিল্পী মনে করেন গানের দল দোহারের সদস্যরা। কলকাতার এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড দোহার। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে গান করছে তারা। তাদের গানের বিশাল ভক্তশ্রেণী আছে বাংলাদেশেও। গান ও বিভিন্ন কাজে অনেকবার ঢাকায় আসা হয়েছে তাদের। এবারের সফরটি একটু অন্যরকম। দেশটিভিতে গত সোমবার রাতে 'কল-এর গান' অনুষ্ঠানে সরাসরি গান পরিবেশন করেছে দোহার। সেই সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবের অতিথিশালায় কথা হলো দোহারের কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যের সঙ্গে। তিনি বললেন, 'এ অঞ্চল তথা বাংলাদেশের গান গেয়েই আমাদের যাত্রা শুরু, প্রচার ও প্রসার। হাছন রাজা, শাহ আবদুল করিম, শীতলং শাহসহ খ্যাতিমান বাউলদের গান গেয়েছি আমরা। লোকগানের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ আছে এ দেশের মানুষের। কারণ শেকড়টা যে এখানেই রয়ে গেছে।'
 
দোহারের শুরুটা ১৯৯৯ সালের ৭ আগস্ট। সেদিন দলগতভাবে একটি অনুষ্ঠানে গান পরিবেশনের প্রস্তুতি নিলেও তারা কোনো নাম ঠিক করতে পারেননি। অধ্যাপক অজিত মজুমদার ব্যান্ডের নাম দিয়েছিলেন দোহার। পরে অবশ্য দলের সদস্যরা এই নামের অর্থ আবিষ্কার করতে পেরেছিলেন। দোহার মানে কোরাস। বাউল, কীর্তন, ঝুমুর, ভাটিয়ালি, চটকা, ভাওয়াইয়া প্রভৃতি গানের মাধ্যমে দোহারের সদস্যরা সৃষ্টিকর্তারই বন্দনা করছেন। একই সঙ্গে এসব গানের স্রষ্টাকেও মনে করেন তারা। ২০০০ সালে দোহারের প্রথম অ্যালবাম বাজারে আসে। এর নাম ছিল 'বন্ধুর দেশে'।
 
ব্যান্ডের আরেক সদস্য রাজিব দাস বললেন, 'লোকসঙ্গীতের জন্য যেসব যন্ত্রানুষঙ্গ দরকার আমরা তাই ব্যবহার করি। ইলেক্ট্রিক কোনো কিছু নেই আমাদের। এই ক্ষেত্রে প্রচলিত গানগুলো পরিবেশনের ক্ষেত্রে আমরা নিজস্বতা তৈরি করেছি। একজন বাউলের গানকে আমরা নগরে পৌঁছে দেওয়ার কাজটুকু করছি গানগুলোর সুর ঠিক রেখে।'
 
দোহারে সাধারণত নতুন গান লেখা ও সুর তৈরি করার রীতি নেই। কিন্তু গত ফেব্রুয়ারিতে শাহবাগের গণজাগরণ নিয়ে 'শাহবাগ দিচ্ছে ডাক' শিরোনামে একটি গান বেঁধেছিল তারা। গানটি এখানকার আন্দোলনকারীদের মধ্যে স্পৃহা তৈরি করেছিল। এ প্রসঙ্গে কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্য বললেন, 'একটি আন্দোলনের সঙ্গে সবার সমর্থন থাকবে এমন নয়। আমাদের কাছে মনে হয়েছিল যে, সাম্প্রতিক সময়ে এমন গণজোয়ার আর সংগঠিত হয়নি। এর সঙ্গে সম্পৃক্ত করতেই দোহারের গানটি তৈরি করা হয়েছিল। আমাদের মনে হয়েছিল, পুরনো কোনো গান দিয়ে এই আন্দোলনকে বেগবান করা সম্ভব নয়। তাই নতুন কথা লিখেছিলাম।'
আরও পড়ুন
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved