logo
প্রকাশ : ০৪ মার্চ, ২০১৭ ২৩:০৩:১৬আপডেট : ০৪ মার্চ, ২০১৭ ২৩:১৯:২১
অবিন্তাকে খোলা চিঠি
শনিবার ছিল এই ফাউন্ডেশনের শুভযাত্রা। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অবিন্তার উদ্দেশে লেখা খোলা চিঠি পড়লেন মা রুবা আহমেদ
সমকাল প্রতিবেদক

গুলশানের হলি আর্টিসানে জঙ্গি হামলায় নিহতদের একজন অবিন্তা কবির। না ফেরার দেশে চলে গেলেও তার মানবসেবার স্বপ্ন এগিয়ে নিতে গড়ে তোলা হয়েছে অবিন্তা কবির ফাউন্ডেশন। শনিবার ছিল এই ফাউন্ডেশনের শুভযাত্রা। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অবিন্তার উদ্দেশে লেখা খোলা চিঠি পড়লেন মা রুবা আহমেদ। আবেগে ভরা চিঠিতে তিনি লিখেছেন, 'আমার সোনামণি, আর সব দিনের মতো আজও তোকে লিখতে বসেছি। পার্থক্য শুধু একটাই, আজ তোর সঙ্গে গল্প হচ্ছে অনেক লোকের সামনে। তুই তো আমার আত্মার সঙ্গে মিশে আছিস, আমার সবচেয়ে আদরের ধন। এই দ্যাখ, আজ যা কিছু পরেছি সব তোর। কেন জানিস? এখানটায় দাঁড়িয়ে তোর কথা বলতে যে সাহসটুকু চাই, তা পাব আশা করে।' এতটুকু পড়ে তিনি থেমে যান। কান্নায় ভেঙে পড়েন। অনুষ্ঠানে আসা অতিথিরাও কাঁদলেন। রুবা আহমেদ কিছুটা সামলে নিয়ে আবার পড়ে শোনালেন, 'আমার মনে পড়ে শুধু একবার তোকে বলেছিলাম, নিজের পরিচয়টা ভুলে যাস না। ওটাই আসল। তুই ভুলিসনি। সব সময় দেশে ফিরতে চেয়েছিস। দেশে আসার কথা হলে সবচেয়ে বেশি খুশি হতি। তোর নানা, টুটু, পাপা, দাদা, দাদু, ফুপু, খালা, মামা আর তোর ভাইবোনেরা সবাই তোর কথা বলে। ১৯ বছর ৪ মাসের জীবনে তুই কখনও আমার অবাধ্য হোসনি। যদিও কখনও কখনও আমি কঠোর হয়েছি। তুই বলতি আমার মতো হতে চাস। আরে পাগলি, আমার মতো হওয়া তো খুব সহজ। কঠিন হয়তো অসম্ভব তোর মতো হওয়া। আমি এক গর্বিত মা। কথা দিচ্ছি তোর স্বপ্ন পূরণের চেষ্টা করব।' অকাল প্রয়াত মেয়ের স্বপ্নপূরণ করতে তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন অবিন্তা কবির ফাউন্ডেশন। রাজধানীর একটি হোটেলে এই ফাউন্ডেশনের কার্যক্রমের উদ্বোধন হয়েছে। দেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষাদান ও সমাজে শিশুদের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে গড়ে তোলার কাজে নিয়োজিত থাকবে এই ফাউন্ডেশন। 'অবিন্তা কবির স্মরণ' শীর্ষক অনুষ্ঠানে 'অ্যান ইনটিমেট পোর্ট্রেট অব অবিন্তা কবির' শিরোনামে একটি বই ও একটি ওয়েবসাইট www.abintafoundation.org- এর উদ্বোধন করা হয়। বইতে উনিশ বছরের এই তরুণীর জীবনের স্মৃতি তুলে ধরা হয়েছে। পরিবারের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পরিবারের ঘনিষ্ঠ লোকজন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অবিন্তার বন্ধু-বান্ধব ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রাখেন অবিন্তা কবিরের মা রুবা আহমেদ, নানা মনজুর মোরশেদ, নানী নীলু রওশন মোরশেদ ও মামা তানভীর আহমেদ। অবিন্তার নানান স্মৃতি তুলে ধরতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তারা। অনুষ্ঠানে ছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট। অবিন্তাকে স্মরণ করে তিনি বলেন, 'অবিন্তা একজন প্রতিভাবান তরুণী, যে কি-না যুক্তরাষ্ট্রের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে একটিতে শিক্ষার্থী হিসেবে অধ্যয়নরত ছিল। বাংলাদেশকে উন্নত স্থানে পরিণত করার ক্ষেত্রে সে ছিল দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। তার অনুপস্থিতিতেও এ পৃথিবীকে সে সর্বোৎকৃষ্ট স্থানে পরিণত করে চলেছে। আসুন আমরা সকলে মিলে পৃথিবীকে আরও সুন্দর করে তুলি, ঠিক যেমনটি অবিন্তার স্বপ্ন ছিল।' অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ইতালির রাষ্ট্রদূত মারিও পালমাসহ বিশিষ্টজন।

সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা ঢাকা - ১২০৮