শিরোনাম
 হাওরে সাড়ে আট লাখ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত  বিচারক ও আইনজীবীদের আরও মানবিক হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী  বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলে জঙ্গি হামলা কমে যাবে: ওবায়দুল কাদের  সহায়ক সরকার ছাড়া আগামী নির্বাচন গ্রহণযোগ্যতা পাবে না: ফখরুল
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর ২০১৬, ০০:৪৭:৩৮

অনুবাদ দ্বিপক্ষীয় বিষয়

সমকালকে ম্যানবুকার পুরস্কারপ্রাপ্ত ডেবোরাহ স্মিথ
দীপন নন্দী
'প্রান্তিক পরিবার থেকে উঠে এসেছি আমি। তবে অন্য ভাষা ও সংস্কৃতির বিষয়ে ছোটকাল থেকেই আমার খুব আগ্রহ ছিল। ২২ বছর বয়স হলেও আমি শুধু ইংরেজি জানি_ এটা আমার জন্য খুব লজ্জার ছিল। এসব বিষয়ই আমাকে অনুবাদ সাহিত্যের প্রতি আগ্রহী করে তোলে।' সমকালের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে গতকাল শুক্রবার অনুবাদ সাহিত্যের প্রতি নিজের আগ্রহের কথা জানাতে এসব কথা বলেন ডেবোরাহ স্মিথ। তিনি বলেন, 'অনুবাদ দ্বিপক্ষীয় বিষয়। অনুবাদের বই মূল ভাষার জনগোষ্ঠী ও অনূদিত ভাষার জনগোষ্ঠী_ উভয়পক্ষের জন্য প্রাসঙ্গিক হতে হবে। পাঠককেও নতুন কিছু দিতে হবে। না হলে পাঠক এতে আকৃষ্ট হবে না।'

শুধু বাংলাদেশে নয়, দক্ষিণ এশিয়াতেই ডেবোরাহ স্মিথের

এটি প্রথম সফর। মাত্র ২৮ বছর বয়সেই তিনি পেয়েছেন ম্যানবুকার পুরস্কার। চলতি বছরে দক্ষিণ কোরিয়ার লেখক হান কাংয়ের 'দ্য ভেজিটেরিয়ান' উপন্যাস অনুবাদের জন্য যৌথভাবে এ পুরস্কার অর্জন করেন এ ব্রিটিশ অনুবাদক। বাংলা একাডেমি চত্বরে চলমান ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে গতকাল তিনি সমকালের মুখোমুখি হন। 'বাংলাদেশের গ্রন্থাগার সমস্যা ও সম্ভাবনা' সংক্রান্ত অধিবেশনে অংশ নেওয়ার পর কথা হয় তার সঙ্গে। কথা বলেন অনুবাদ সাহিত্য নিয়ে। জানান বাংলাদেশের সাহিত্য নিয়ে তার ভাবনা।

ঢাকার আবহাওয়াকে দারুণভাবে উপভোগ করছেন জানিয়ে ডেবোরাহ স্মিথ বলেন, 'খুবই ভালো লাগছে এখানে এসে। চমৎকার আবহাওয়ার মধ্যে ঘুরে বেড়াতে মজা লাগছে।' নীলক্ষেতের বইয়ের দোকানের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, 'আড্ডায় আমাকে একজন বলেছেন, এখানে নাকি পাইরেটেড বইয়ের দোকান আছে। ওখানে আমাকে যেতেই হবে। আমি মনে করি, এটা আমার জন্য নতুন এক অভিজ্ঞতাই হবে।'

অনুবাদ করার অভিজ্ঞতা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে স্মিথ মন্তব্য করেন, 'এখানে অবশ্যই নতুন কিছু থাকতে হবে, যা থেকে পাঠকের আগ্রহ দেখা দেবে। একই সঙ্গে বিষয়টি হতে হবে দ্বিপক্ষীয়। ইংল্যান্ড বা যুক্তরাষ্ট্রে যে পাঠক আছেন, তাকে এমন কিছু দিতে হবে, যেটি তার ভাবনায় নতুন কিছু যোগ করবে। একই সঙ্গে বাংলাদেশের পাঠকের জন্য এমন অনুবাদের বই দিতে হবে, যা তাকে আকৃষ্ট করে।'

বাংলাদেশের সাহিত্য সম্পর্কে স্মিথ বলেন, 'খুব ছোটবেলাতেই আমি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গীতাঞ্জলির ইংরেজি অনুবাদ পড়েছি। আমি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের ছোটগল্পের একটিমাত্র অনুবাদ বই হাতে পেয়েছি। বিমানে সেটিই আমার সঙ্গী ছিল। ওই বইয়ে থাকা আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের 'দ্য রেইনকোট' ও মঈনুল আহসান সাবেরের 'সার্কেল' গল্প দুটি আমার ভালো লেগেছে। আমি বাংলাদেশের আরও সাহিত্য পড়তে আগ্রহী।'

নিজের অনুবাদ বইয়ের প্রকাশনা সংস্থা 'টাইটেলড এক্সিস' থেকে বাংলাদেশের লেখকদের বই অনুবাদ করে প্রকাশের আগ্রহ সম্পর্কে তিনি বলেন, 'আমি ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের 'দ্য প্যান্টি'র অনুবাদের কাজ করছি। এখানে এসে আমি বাংলাদেশের সাহিত্যিকদের বিষয়ে জানার চেষ্টা করছি। এটি আমাকে পরে অনুবাদ করার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে।'

ঢাকা লিট ফেস্ট নিয়ে উচ্ছ্বসিত হতে দেখা গেল স্মিথকে। সমকালকে তিনি বললেন, 'বড় আকারের চমৎকার এ আয়োজনে আমাকে সবচেয়ে মুগ্ধ করেছে খুবই আন্তরিকতা নিয়ে সবার অধিবেশনগুলো শোনার বিষয়টি, একাত্ম হওয়ার বিষয়টি। আমি খেয়াল করেছি এমনকি পুলিশ সদস্যরাও আলাপগুলো শুনে বোঝার চেষ্টা করছেন। এখানে প্রচুর তরুণ ও শিক্ষার্থীরা এসেছেন, এটাও আমার খুব ভালো লেগেছে। ইংল্যান্ডেও প্রচুর সাহিত্য উৎসব হয়। কিন্তু সেখানে ঢাকার মতো এত মানুষের মিলনমেলা হয় না। ইংল্যান্ডের সাহিত্য উৎসবগুলোতে মূলত লেখক, প্রকাশক, সেলিব্রেটিরা আসেন।'

ম্যানবুকার পুরস্কার পাওয়া গ্রন্থ 'দ্য ভেজিটেরিয়ান' সম্পর্কে ডেবোরাহ স্মিথ বলেন, 'একজন অতি সাধারণ গৃহিণী 'গাছগাছালির মতো' অস্তিত্ব কামনা করে ভেজিটেরিয়ান হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তার এ সিদ্ধান্ত নিয়েই উপন্যাসটি বেড়ে উঠেছে। এ সিদ্ধান্তের কারণে তিনি বাবার বিরাগভাজন হন, স্বামী তার প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করেন এবং তার বোনের স্বামী তার প্রতি অনুরক্ত হয়ে ওঠেন। ইয়ং-হাই নামের মহিলাটি গাছ হয়ে যাওয়ার স্বপ্নে যত বিভোর হয়, কাহিনী ততই জমে উঠতে থাকে।

ম্যানবুকার পুরস্কারপ্রাপ্তি সম্পর্কে স্মিথ বলেন, 'মাত্র ২৮ বছর বয়সে এ পুরস্কারপ্রাপ্তি নিঃসন্দেহে গর্বের।' এরপর তিনি রসিকতা করেন, 'এত অল্প বয়সেই এত বড় পুরস্কার পেয়ে গেলাম, আমার মনে হচ্ছে, আমার ক্যারিয়ার এরপর নিচের দিকে নামবে!

২৮ বছর বয়সী ডেবোরাহ স্মিথ ২১ বছর বয়সে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি শেষ করার পর অনুবাদক হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। ২০১৫ সালে তিনি লন্ডন ইউনিভার্সিটি থেকে সমসাময়িক কোরিয়ান সাহিত্যের ওপর পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। অনুবাদ সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য তিনি ২০১৬ সালে পেয়েছেন ফাউন্ডেশন অ্যাওয়ার্ড।
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved