শিরোনাম
 হাওরে সাড়ে আট লাখ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত  বিচারক ও আইনজীবীদের আরও মানবিক হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী  বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলে জঙ্গি হামলা কমে যাবে: ওবায়দুল কাদের  সহায়ক সরকার ছাড়া আগামী নির্বাচন গ্রহণযোগ্যতা পাবে না: ফখরুল
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর ২০১৬, ০০:৫৮:৩৮
শুরু হলো ঢাকা লিট ফেস্ট

সাহিত্য রুখবে অপশক্তি

সমকাল প্রতিবেদক
কথার পিঠে কথায় পথের অন্বেষণ আর ভীষণ ব্যস্ততার মধ্যেও আড্ডার আমেজ এখন বাংলা একাডেমির চত্বরে। সাহিত্যিক, সাহিত্যবোদ্ধা-রসিক ও সংস্কৃতিমনাদের ইতস্তত বিক্ষিপ্ত ভিড় প্রাঙ্গণে, মিলনায়তনের সামনে। দেশি-বিদেশি লেখক-সাহিত্যিকরা এসেছেন। বলছেন নিজের কথা। বলছেন সমাজের আর সাহিত্যের কথা। ক্ষোভ আর উদ্বেগও ঝরছে জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার আগ্রাসনে; মুক্তবুদ্ধির চর্চাকারী লেখকদের ওপর আঘাত আসছে বলে। তারা বলছেন, 'সাহিত্যে রয়েছে শুভশক্তি, যা রুখে দেবে সব অশুভকে।' এ প্রত্যয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে শুরু হয়েছে ঢাকা লিটারারি ফেস্টিভাল, যা পরিচিত ঢাকা লিট ফেস্ট নামে। সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ত্রিনিদাদের লেখক ভিএস নাইপল উদ্বোধন করেন তিন দিনের এ উৎসবের, যা চলবে আগামীকাল শনিবার পর্যন্ত। প্রথম দিনে সাহিত্য, বিজ্ঞান, রাজনীতিসহ নানা বিষয়ে ২৩টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী দুই দিনে আরও ৭০টির মতো অধিবেশন থাকবে এ সাহিত্য

উৎসবে। যাত্রিক এ উৎসবের আয়োজন করেছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায়। উৎসবে ১৮ দেশের ৬৬ জন বিদেশি এবং দেড় শতাধিক বাংলাদেশি সাহিত্যিক-লেখক-গবেষকরা অংশ নিচ্ছেন।

গতকাল একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সম্মানিত অতিথি ও বিশেষ অতিথি ছিলেন যথাক্রমে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ও একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উৎসব পরিচালকত্রয় কাজী আনিস আহমেদ, আহসান আকবর এবং সাদাফ সায্। সংক্ষিপ্ত আলোচনা পর্ব শেষে সহধর্মিণী নাদিরা নাইপলকে নিয়ে উৎসব উদ্বোধন করেন ভিএস নাইপল। এর আগে রেজওয়ানা চৌধুরীর পরিচালনায় সুরের ধারার শিল্পীরা রবীন্দ্রসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

উদ্বোধনের পর ভিএস নাইপল বলেন, 'খুব ভালো লাগছে ঢাকায় এসে। উৎসব উদ্বোধন করতে পেরেও খুব আনন্দিত।' খানিকটা রসিকতা করে তিনি আরও বলেন, 'একবার এক অনুষ্ঠান উদ্বোধন করতে গিয়ে দ্রুত ফিতা কেটেছিলাম। তখন পাশে থাকা আমার এক বন্ধু বলল, তাড়াতাড়ি ফিতা কাটতে নেই। আবেদনটা ধরে রাখতে ধীরে ধীরে কাটতে হয়। আমি বোধহয় এবারও তাড়াতাড়ি ফিতা কেটে ফেলেছি। ফিতা তো কাটলাম, এখন আমার হয়ে কেউ বক্তৃতাটা দিক।'

অর্থমন্ত্রী আবদুল মুহিত বলেন, 'এ সাহিত্য উৎসব আমাদের সংস্কৃতিকে যেমন বিশদভাবে তুলে ধরছে, সে সঙ্গে বিশ্বসংস্কৃতি ও সাহিত্যকেও আমাদের সামনে হাজির করছে। আশা করি, এ উৎসবের মধ্য দিয়ে আমাদের অনুবাদ সাহিত্য সমৃদ্ধ হবে_ বিশ্বে তুলে ধরা যাবে আমাদের সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ও সাহিত্য।'

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, 'দেশে মুক্তমনা সাহিত্যিক-ব্লগার, লেখক-প্রকাশকের ওপর হামলা হয়েছে একাধিকবার। বিদেশিদের অনেকে তাই আসতে শঙ্কিত ছিলেন, কিন্তু আমরা চেষ্টা করেছি সব শঙ্কা দূর করতে। এ উৎসব তাই আমাদের জন্য বেশ স্বস্তির।'

উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতার পর বিভিন্ন অধিবেশন শুরু হয়। বিভিন্ন কবির কবিতায় সুরারোপ করে সঙ্গীত পরিবেশন করেন মেহেদি হাসান ও তার বন্ধুরা। একই সময় কসমিক টেন্টে প্রদর্শিত হয় জয়া আহসান অভিনীত ও ইন্দ্রনীল রায় পরিচালিত চলচ্চিত্র 'ভালোবাসার শহর'। চলচ্চিত্রটি নিয়ে কথা বলেন পরিচালক ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী, অভিনেত্রী জয়া আহসান এবং পশ্চিমবঙ্গের লেখিকা সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আলোচনা পরিচালনা করেন সাদিয়া মাহ্্জাবিন ইমাম।

দুপুর ১টায় মূল মঞ্চে বিশ্বসাহিত্য নিয়ে 'ওয়ার্ল্ড ফিকশন :হিডেন রিয়েলিটি' অধিবেশনে ড্যানিয়েল হানের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন নিকোলাস লেজার্ড, আনজুম হাসান, নায়েল এলতোখ্রি ও এমি স্যাকভিলে। 'ইমাজিনিং হিস্ট্রি' অধিবেশনে সাদ জেড হোসাইনের সঞ্চালনায় অংশ নেন সাজিয়া ওমর ও বাপ্পাদিত্য চক্রবর্তী। এ সময় ব্যান্ড তারকা মাকসুদুল হক ও স্টিভেন পাওলার লনে ইংরেজি কবিতা পাঠ করেন।

দুপুর ২টায় প্রধান মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় 'আমেরিকা :এক্সপেশনাল নো মোর' শীর্ষক অধিবেশন। সঞ্চালনা করেন শ্রীরাম কারি। আলোচনা করেন ভারতের এনডিটিভির প্রধান সম্পাদক বারখা দত্ত ও বেন জোদাহ, মার্কিন কবি জেফরি ইয়াং ও আরব সাহিত্যের কিউরেটর মার্সিয়া লিন্যাক্স কিউলি। একই সময় বাংলাদেশের জিন বিজ্ঞানী আবেদ চৌধুরী ও জুহানি প্লাজমা 'নিওরোসায়েন্সের অ্যাসথেটিক্স' নিয়ে আলোচনা করেন কাজী কে আশরাফের সঞ্চালনায়। একই সময় লনে 'সাম্প্রদায়িকতার এপার ওপার' নিয়ে আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কবি মাসুদুজ্জামান, কবি জহর সেন মজুমদার, লেখক সেমন্তি ঘোষ ও লেখক মাসুদুল হক। সঞ্চালনা করেন আহমেদ রেজা। এ সময় ব্র্যাক স্টেজে অনুষ্ঠিত হয় 'ক্রাইম পেইজ :দ্য আর্ট অব সাসপেন্স' শীর্ষক অধিবেশন।

বিকেল সাড়ে ৩টায় মূল মঞ্চে বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত মীর মশাররফ হোসেনের 'বিষাদ সিন্ধু'র ইংরেজি অনুবাদ 'ওশান অব সরো'র প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। বইটির অনুবাদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ফকরুল আলমের সঙ্গে বইটি নিয়ে আলোচনা করেন কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম।

একই সময় লনে 'সময়ের কবিতা সময়ান্তরের কবিতা' শীর্ষক অধিবেশনে কবি আসাদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় কবিতা পাঠ করেন কাজী রোজি, হাবীবুল্লাহ সিরাজী, আসাদ মান্নান, শিহাব শাহরিয়ার, কুমার চক্রবর্তী, পাবলো শাহী, মুস্তাফিজ শফি, ওবায়েদ আকাশ, হাসান মাহমুদ, জুয়েল মাজহার, মাহমুদ শাওন প্রমুখ। একই সময় ব্র্যাক স্টেজে 'তনয়া তানিয়া' বইটি নিয়ে এর লেখক ভারতের প্রাবন্ধিক অন্তরা গাঙ্গুলির সঙ্গে আলোচনা করেন অভিনেতা ইরেশ যাকের। এ সময় বটতলায় ছিল আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের কবিতা আবৃত্তি অনুষ্ঠান। একই সময় কসমিক টেন্টে ভিএস নাইপলের ওপর নির্মিত বিবিসির বিশেষ তথ্যচিত্র 'দ্য স্ট্রেঞ্জ লাক অব ভিএস নাইপল' প্রদর্শিত হয়।

বিকেলে মূল মঞ্চে বারখা দত্তের সঙ্গে আলোচনায় বসেন উৎসব পরিচালক সাদাফ সায্। আলোচনার বিষয় ছিল বারখা দত্তের বিতর্কিত গ্রন্থ 'দ্য আনকোয়াইট ল্যান্ড'। একই সময় ভ্রমণপিপাসু অস্ট্রেলিয়ান লেখক টিম কোপ কে কে স্টেজে আলোচনায় বসেন তার বই 'জার্নিস অ্যান্ড কোয়েস্ট ইন ট্রুথ' নিয়ে। পুলিৎজার বিজয়ী ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কবি বিজয় শেষাদ্রী আমেরিকার কবিতা নিয়ে ব্র্যাক স্টেজে আলোচনা করেন আরেক কবি জেফরি ইয়াংয়ের সঙ্গে। এ সময় রিচার্ড বিয়ার্ড লাইভ এডিটিংয়ের ওপর কসমিক টেন্টে বিশেষ কর্মশালা পরিচালনা করেন।

সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় মূল মঞ্চে প্রয়াত সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের জীবনী নিয়ে আলোচনা করেন কবিপুত্র দ্বিতীয় সৈয়দ হক, কবি সাজ্জাদ শরীফ ও সাহিত্যিক আহমেদ মাযহার। সঞ্চালনা করেন পারভেজ হোসেন। এ সময় দ্বিতীয় সৈয়দ হক বলেন, 'সব্যসাচী লেখকের চেয়ে কবি পরিচয় দিতে বাবা বেশি স্বাচ্ছদ্য বোধ করতেন। সব্যসাচী তার প্রকাশনীর নাম ছিল। তাকে সব্যসাচী না বলে কবি বললে তার আত্মা শান্তি পাবে।' এ সময় সৈয়দ শামসুল হক রচিত 'নীল দংশনের' ইংরেজি অনুবাদ 'ব্লু ভেনমের' অংশবিশেষ মঞ্চস্থ হয়। নায়লা আজাদের পরিচালনায় এতে অভিনয় করেন আরেফ সৈয়দ ও আরিক আনাম খান। এর পর বটতলায় সঙ্গীত পরিবেশন করেন লোকসঙ্গীত শিল্পীরা। এর মধ্যে দিয়ে শেষ হয় প্রথম দিনের আয়োজন।

আজ শুক্রবার উৎসবের দ্বিতীয় দিনে মূল মঞ্চে সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে 'দি রাইটার অ্যান্ড দ্য ওয়ার্ল্ড : ভিএস নাইপল'। এতে উৎসব পরিচালক আহসান আকবরের সঙ্গে নিজের জীবন ও সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনা করবেন নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত সাহিত্যিক ভিএস নাইপল।
মন্তব্য
সর্বশেষ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved