logo
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০১৬ ০২:০৬:৪৫
নীতি সংলাপে বক্তারা
এসডিজি অর্জনে নগর স্বাস্থ্যকে গুরুত্ব দিতে হবে
সমকাল প্রতিবেদক
'নগরসমূহে স্বাস্থ্যসূচক বিষয়ে পৌরসভার করণীয়' শীর্ষক এক নীতি সংলাপে সুস্থ নগরজীবন নিশ্চিত করতে বিশেষজ্ঞরা নগর স্বাস্থ্যের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তারা বলেছেন, বাংলাদেশের মোট জনগোষ্ঠীর ৩০ শতাংশ বর্তমানে নগরে বাস করে। এ অবস্থায় নগর স্বাস্থ্যকে গুরুত্ব না দিলে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়াসহ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন বাংলাদেশের জন্য কঠিন হবে। গতকাল শনিবার রাজধানীর এলজিইডি মিলনায়তনে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেটরি রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি) এবং ওয়াটার এইড এ সংলাপের আয়োজন করে। দেশের বিভিন্ন পৌরসভা থেকে সংলাপে অংশগ্রহণকারী মেয়র ও কাউন্সিলররা বলেন, পৌরসভার রাস্তাঘাট মেরামতসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য সরকার অর্থ বরাদ্দ দিলেও স্বাস্থ্যসেবার জন্য কোনো বরাদ্দ দেওয়া হয় না। তাই স্বাস্থ্যসেবার বিষয়টি গুরুত্ব পায় না। সংলাপে পৌরসভায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা নিয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমন্বয়হীনতার বিষয়টি উঠে আসে। অংশগ্রহণকারীরা বলেন, নগরে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার দায়িত্ব স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের। কিন্তু স্বাস্থ্যকেন্দ্র, হাসপাতাল, চিকিৎসকসহ জনবল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকে। তাই এ বিষয়ে সমন্বয়হীনতার কারণে মানুষ সেবাবঞ্চিত হচ্ছেন। মেয়র ও কাউন্সিলররা বলেন, পৌরসভাগুলোতে চিকিৎসক সংকট ভয়াবহ। ৩২৪ পৌরসভায় মাত্র ১৬ জন চিকিৎসক আছেন। এ কারণে পৌরসভায় নামমাত্র স্বাস্থ্য বিভাগ আছে, কোনো কাজ নেই। অনুষ্ঠানে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও পিপিআরসি নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টনের ক্ষেত্রে একটি দোলাচল ও অস্পষ্টতা আছে। তাই দুই মন্ত্রণালয়ের মধ্যে দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে বণ্টন হওয়া দরকার। তাহলে নগর স্বাস্থ্যের উন্নয়ন সম্ভব হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ধীরাজ কুমার নাথ বলেন, পৌরসভার আয় বাড়াতে বিভিন্ন সেবা খাত থেকে যে রাজস্ব পাওয়া যায় তার একটি অংশ পৌরসভায় দেওয়া প্রয়োজন। তাহলে পৌরসভার অনেক সমস্যার সমাধান মেয়ররাই করতে পারবেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাবেক সচিব এএমএম নাসির উদ্দিন, বিশ্বব্যাংকের জ্যেষ্ঠ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বুশরা আলম, মিউনিসিপাল অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ, সভাপতি আবদুল বাতেন, ওয়াটার এইডের বাংলাদেশ প্রতিনিধি ডা. খায়রুল ইসলামসহ পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলররা।
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা ঢাকা - ১২০৮